স্মিথ-ওয়ার্নারদের শাস্তি কমানোর দাবি ক্রিকেটার্স ইউনিয়নের 

কেপ টাউন টেস্টে বল ট্যাম্পারিংয়ের অপরাধে ৩ ক্রিকেটারকে আন্তর্জাতিক ও ঘরোয়া ক্রিকেটে নিষিদ্ধ করেছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। স্টিভেন স্মিথ ও ডেভিড ওয়ার্নারকে ১২ মাসের জন্য এবং ক্যামেরন ব্যানক্রফটকে ৯ মাসের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়েছে। কিন্তু তাদের এ শাস্তিকে ‘অসামঞ্জস্যপূর্ণ’ বলে দাবি করেছে অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটারদের সংগঠন ‘অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটার্স অ্যাসোসিয়েশন’ (এসিএ)। একই সাথে এ তিন ক্রিকেটারের শাস্তি কমানোর কথাও বলেছে তারা।


বল ট্যাম্পারিংয়ের অভিযোগ আসার দ্রুততম সময়ের মধ্যেই ৩ ক্রিকেটারের শাস্তি ঘোষণা করেছিল অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট বোর্ড। আর দ্রুত শাস্তি ঘোষণার বিষয়টি মানতে পারেনি ক্রিকেটারদের সংগঠন এসিএ। সংগঠনটির প্রেসিডেন্ট গ্রেগ ডেয়ারের ভাষায়, ‘তাড়াহুড়া করে শাস্তি দিলে তা ত্রুটিপূর্ণ থেকে যায়। তাদের এ ধরণের শাস্তি খুবই অসামঞ্জস্যপূর্ণ।’

ডেয়ারের দাবি এমন অনেক দৃষ্টান্ত আছে, যেখানে এধরণের অপরাধের জন্য ২টি ওয়ানডেতে নিষিদ্ধ করা হয়েছে। একই সাথে শাস্তির মাত্রা কমিয়ে তাদের ঘরোয়া ক্রিকেটে দ্রুত ফিরে আসার সুযোগ করে দিতেও তিনি ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন, ‘আমরা মনে করি, পুনর্বাসন প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে তাদের (৩ ক্রিকেটারের) দ্রুতই ঘরোয়া ক্রিকেটে ফেরানো জরুরী।’

কেপ টাউন টেস্টে বল ট্যাম্পারিংয়ের ঘটনায় আইসিসির শাস্তির মুখেও পড়েছেন স্মিথ ও ব্যানক্রফট। স্মিথকে ১ টেস্ট নিষিদ্ধসহ তার ম্যাচ ফির পুরোটাই জরিমানা করা হয়েছে। অন্যদিকে ব্যানক্রফটের ম্যাচ ফির ৭৫ শতাংশ জরিমানা করেছে আইসিসি। গত সপ্তাহে দেশে ফিরে পৃথক সংবাদ সম্মেলনে তিন ক্রিকেটারই নিজেদের দোষ স্বীকার করেছেন। তারা সকলের কাছে দুঃখ প্রকাশ করে ক্ষমা চেয়েছেন।

Post a Comment

বাংলাদেশ

[National][fbig1]

ঢাকা উত্তর

[Dhaka North][slider2]

ঢাকা দক্ষিন

[Dhaka South][slider2]

আন্তর্জাতিক

[International_News][gallery2]

ঢাকা উপজেলা

[Dhaka Upazila][fbig2 animated]

রাজনীতি

[political_news][carousel2]

অপরাধ

[Crime][slider2]
Powered by Blogger.