রিকশাচালককে গলাকেটে হত্যার ঘটনায় মামলা  

শরীয়তপুর সদর উপজেলার নীলকান্দি গ্রামে এক রিকশাচালককে গলা কেটে হত্যার ঘটনায় ৩দিন পরে মামলা করা হয়েছে। শুক্রবার রাতে নিহতের বাবা আ. কুদ্দুছ সরদার বাদী হয়ে ১০জনকে সন্দেহভাজন আসামি করে পালং মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।


পালং মডেল থানা ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বুধবার রাতে শরীয়তপুর সদর উপজেলার নীলকান্দি গ্রামের আ কুদ্দুছ সরদারের ছেলে রিকশাচালক সজিব সরদারকে(১৮) গলাকেটে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। পরে শুক্রবার রাতে নিহতের বাবা আ. কুদ্দুছ সরদার বাদী হয়ে ১০জনকে সন্দেহভাজন আসামি করে পালং মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। ঘটনার ৪দিন পরেও কোনো আসামিকে পুলিশ গ্রেফতার করতে পারেনি।

নিহতের পারিবারিক সূত্র জানায়, রিকশা চালক সজিব সরদার (১৮) গত বুধবার  সারাদিন স্থানীয় আংগারিয়া শরীয়তপুর সহ তার আশে পাশেই রিকশা চালান। ঐদিন বিকেল অনুমান ৪টায় বাড়ি থেকে রিকশা নিয়ে বের হন। রাতে আর বাড়ি ফিরেননি। অনেক খোঁজাখুঁজি করেও কোথাও তার সন্ধান মেলেনি। বৃহস্পতিবার সকালে উপুড়গাও নামক স্থানে কীর্তনাশা নদীর পাড়ে মাঠের মধ্যে সজিবের গলা কাটা লাশ পাওয়া যায়।

বাদী এজাহারে উল্লেখ করেন, যে প্রতিবেশী মতিউর রহমান মুন্সির সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে জমিজমা নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। তিনিসহ তার লোকজন নিয়ে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে তার ছেলে সজিব সরদারকে গলা কেটে হত্যা করেছে। এ মামলা দায়ের হওয়ার পরে আসামিরা পলাতক রয়েছেন। গত ৪দিনেও পুলিশ কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি।

এ ব্যাপারে পালং মডেল থানার ওসি মো. মনিরুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। হত্যাকারী খুঁজে বের করার জন্য জোর তদন্ত চলছে। আশা করি হত্যাকারীদের শিগগিরই গ্রেফতার করতে সক্ষম হব।

Post a Comment

বাংলাদেশ

[National][fbig1]

ঢাকা উত্তর

[Dhaka North][slider2]

ঢাকা দক্ষিন

[Dhaka South][slider2]

আন্তর্জাতিক

[International_News][gallery2]

ঢাকা উপজেলা

[Dhaka Upazila][fbig2 animated]

রাজনীতি

[political_news][carousel2]

অপরাধ

[Crime][slider2]
Powered by Blogger.