একের পর এক ভুল উত্তর দিয়ে পুলিশকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছিল হানিপ্রীত। কিন্তু সে কৌশল ফলপ্রসূ হল না। পুলিশের জেরার মুখে অবশেষে ভেঙেই পড়ল রাম রহিমের তথাকথিত দত্তক কন্যা। 


ধর্ষক বাবার গ্রেপ্তারের পর যে সংঘাতের ঘটনা ঘটেছিল, তা তারই মস্তিষ্কপ্রসূত বলে স্বীকার করল পুলিশের কাছে।

গ্রেপ্তারের পর হানিপ্রীতকে একাধিক প্রশ্ন করেন পুলিশ। কিন্তু সবই কৌশলে এড়িয়ে যান তিনি। কখনও জানায়, তথ্য জানা নেই তার। বার কয়েক চেষ্টার পর পুলিশ বুঝে যায় মচকালেও ভাঙবে না হানিপ্রীত।

এরপরই কৌশলে হানিপ্রীতকে গোপন ডেরায় তুলে নিয়ে গিয়ে লাগাতার জেরা শুরু করে পুলিশ। প্রায় তিনশোটি প্রশ্ন তৈরি করা হয়। রাম রহিমের যৌন জীবন, রাম রহিমের সঙ্গে তার সম্পর্ক, ডেরায় সংঘাতের ঘটনা, সাধ্বীদের ধর্ষণের মতো একাধিক বিষয় নিয়ে তার কাছে জানতে চাওয়া হয়। লাগাতার জেরার মুখে নিজেকে আর সামলাতে পারেনি হানিপ্রীত।

অবশেষে স্বীকার করেছে পঞ্চকুল্লায় সংঘাতের ঘটনার ছক কষেছিল সে নিজেই। ১৭ আগস্ট ডেরায় বসে পুরো ঘটনার ব্লুপ্রিন্ট তৈরি হয়। কোন পথে সংঘাত ঘটানো হবে, সেই ম্যাপও তৈরি করা হয়। যা হানিপ্রীতের ল্যাপটপ থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। সংঘাত পরিচালনার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল ডেরার শীর্ষ পদে থাকা ব্যক্তিদের। ল্যাপটপটি হাতে পাওয়ার পর পুরো ঘটনায় হানিপ্রীতের ভূমিকা জানতে আর বাকি নেই পুলিশের।

পুলিশের আশা, ল্যাপটপ থেকে ডেরার আর্থিক লেনদেনেরও হদিশ মিলবে। যদিও হানিপ্রীতের ফোনের এখনও খোঁজ পায়নি পুলিশ। বিদেশে কাকে ফোন করত সে, তাও জানা যায়নি।  হানিপ্রীত জানিয়েছে, তার ফোনটি হারিয়ে গিয়েছে। যদিও হানিপ্রীতের ছায়াসঙ্গী শুখদীপ কউর জানাচ্ছেন, সেটি উত্তরপ্রদেশ বা রাজস্থানেই কোথাও লুকানো আছে।

ভারতের সংবাদ প্রতিদিনের খবরে বলা হয়, ডেরায় সংঘাতের ঘটনায় আদিত্য ইনসান, পবন ইনসান ও গোবি রামকে খুঁজছে পুলিশ। যদিও এখনও তাদের সম্বন্ধে বিন্দুমাত্র তথ্য ফাঁস করেনি হানিপ্রীত।  আর তাই তার পুলিশি হেফাজতের মেয়াদ বাড়ানোর আবেদন জানানো হয়েছে। জেরার মুখে হানিপ্রীত যেভাবে ভেঙে পড়ছে, তাতে এ তথ্য বেশিদিন সে গোপন করতে পারবে না বলেই আশা পুলিশের।

Post a Comment

বাংলাদেশ

[National][fbig1]

ঢাকা উত্তর

[Dhaka North][slider2]

ঢাকা দক্ষিন

[Dhaka South][slider2]

আন্তর্জাতিক

[International_News][gallery2]

ঢাকা উপজেলা

[Dhaka Upazila][fbig2 animated]

রাজনীতি

[political_news][carousel2]

অপরাধ

[Crime][slider2]
Powered by Blogger.