রাজধানীর বনানী বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে বুধবার সকাল সোয়া ১০টায় বাংলা সিনেমার কিংবদন্তি অভিনেতা রাজ্জাকের দাফন সম্পন্ন হয়েছে। এ সময় নায়করাজের তিন ছেলে বাপ্পারাজ, বাপ্পি ও সম্রাট এবং নায়ক উজ্জ্বল, শাকিব খান, ফেরদৌস, অমিত হাসানসহ আত্মীয়-স্বজনরা উপস্থিত ছিলেন।


বুধবার ভোরে নায়করাজের কানাডা প্রবাসী মেঝো ছেলে বাপ্পি ঢাকায় পা রাখেন। বাপ্পি এক নজর বাবা দেখতে চেয়েছিলেন। এর কারণে একাধিকবার এ নায়কের দাফনের সময় পরিবর্তন করা হয়।
দাফনের পর সম্রাট বলেন, ‘আপনারা আমাদের পাশে সবসময় ছিলেন। সেজন্য ধন্যবাদ। আমরা মেঝো ভাইয়ের জন্য অপেক্ষা করেছিলাম। তিনি এসেছেন। আমরা তিন ভাই মিলে দাফন করেছি। সবাই আমার বাবার জন্য দোয়া করবেন।’
এ সময় শাকিব খান বলেন, ‘আমাদের ইন্ডাস্ট্রি দাঁড় করিয়েছেন তিনি। তিনি আমাকে ছেলের মতো দেখতেন। আদর করতেন। বিভিন্ন সময় নানা বিষয়ে পরামর্শ দিতেন, উপদেশ দিতেন।’



কিংবদন্তি এ নায়ক শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করে সোমবার বিকেলে। মঙ্গলবার সকালে মরদেহ নেওয়া হয় এফডিসিতে। সেখানে প্রথম জানাজা শেষে দীর্ঘদিনের সহকর্মীরা তাকে ফুল দিয়ে শেষ শ্রদ্ধা জানান। দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে মরদেহ নেওয়া হয় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে। সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের আয়োজনে প্রিয় নায়ককে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান হাজারো ভক্ত-অনুরাগী।

মঙ্গলবার বেলা ৩টার দিকে দ্বিতীয় জানাজা শেষে নায়করাজের দাফন হওয়ার কথা থাকলেও ছেলে বাপ্পির জন্য একদিন পেছানো হয়। বাদ আসর দ্বিতীয় জানাজার পর মরদেহ রাখা হয় হাসপাতালের হিমাগারে।

বাপ্পি ঢাকায় পৌঁছলে ভোরে মরদেহ হিমাগার থেকে নেওয়া হয় নায়করাজের বাড়িতে। সেখানে স্বজনরা তাকে অশ্রুসজল নয়নে বিদায় জানান। শেষবারের মতো বাবাকে দেখেন বাপ্পি।

Post a Comment

বাংলাদেশ

[National][fbig1]

ঢাকা উত্তর

[Dhaka North][slider2]

ঢাকা দক্ষিন

[Dhaka South][slider2]

আন্তর্জাতিক

[International_News][gallery2]

ঢাকা উপজেলা

[Dhaka Upazila][fbig2 animated]

রাজনীতি

[political_news][carousel2]

অপরাধ

[Crime][slider2]
Powered by Blogger.