বিএনপিকে নির্বাচনে নিতে আওয়ামী লীগের নেতাদের মানুষিক প্রস্তুতি নিতে হবে এবং মানুষিক বিকার গ্রস্থতা থেকে বেড়িয়ে আসতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস।


রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের মিলনায়তনে বিকেলে এক প্রতিবাদ সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন। 'বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলুসহ দলের ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের সকল নেতৃবৃন্দের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও নিঃশর্ত মুক্তি দাবিতে প্রতিবাদ প্রতিবাদ সমাবেশের আয়োজন করে জাতীয়তাবাদী যুবদল ঢাকা মহানগর দক্ষিণ।


প্রধান অতিথির বক্তব্যে মির্জা আব্বাস বলেন, 'বিএনপিকে ক্ষমতায় আসার জন্যই আহ্বান জানাচ্ছে আওয়ামী লীগ। দুই দিন পর পরই তারা (আওয়ামী লীগের নেতারা) বলতেছেন বিএনপিকে নির্বাচনে আসতেই হবে। আরে মিয়া আমরাতো বলছি আমাদেরকে ক্ষমতায় যেতেই হবে। সমস্যা আছে আপনাদের? আমরা ক্ষমতায় যাব। আপনারা আমাদেরকে নির্বাচনে নিবেন, আমরা ক্ষমতায় যাবো অসুবিধা নাই। কিন্তু বিএনপিকে নির্বাচনে নিতে আপনাদেরকে (আওয়ামী লীগের নেতাদেরকে) কতগুলো মানুষিক প্রস্তুতি নিতে হবে। মানুষিক বিকারগ্রস্থতা থেকে আপনাদের বেরিয়ে আসতে হবে। আপনারা যদি মনে করেন ইভিএম, ভোট কারচুপি ও ভোটারববিহীন নির্বাচন করে আবারও আপনারা ক্ষমতায় আসবেন ওই কথা এবার ভাবার অবকাশ নাই।

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য ও বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, 'তোফায়েল সাহেব বলেছেন বিএনপিকে নির্বাচনে আসতেই হবে। কেন বিএনপিকে নির্বাচনে আসতে হবে? আপনারা আমাদের হাতে ধরে নিবেন না পায়ে ধরে নিবেন? হাতে পায়ে ধরার দরকার নাই, সমঝোতার মাধ্যমে নিয়ে যান। কিভাবে? বেগম খালেদা জিয়া নির্বাচনকালীন সরকারের ঘোষণা দিবেন সেটাকে মেনে নিবেন, আমরা আপনাদের কথা মত ইনশাহআল্লাহ্‌ নির্বাচনে আসবো।

খালি মাঠে আওয়ামীলীগকে আর গোল দিতে দিবে না বিএনপি মন্তব্য করে মির্জা আব্বাস বলেন, আওয়ামীলীগও বিশ্বাস করে নির্বাচনকালীন সময়ে সহায়ক সরকার দরকার। সুতরাং আমরা যে সহায়ক সরকারের রুপ রেখা দেব সে অনুযায়ী কাজ করবেন। নির্বাচনে আমরা যাব। আর তা না করে যদি মনে করেন ভোটবিহীন নির্বাচন করে জয় লাভ করবেন সেটা হবে না, এবার সেন্টার খালি যাবে না। আমি চ্যালেঞ্জ কোনো কিছুই বাংলাদেশে খালি যাবে না আর। খালি মাঠে আপনাদের আর গোল দিতে দেওয়া হবে না। এ কথা মাথায় রাখবেন। আমাদের কয়েকজন নেতা বলেছেন বিএনপি নির্বাচনে যাবে, এ কথা শুনেই আপনাদের মাথা খারাপ হয়ে গেছে। আর যেদিন বাস্তব অর্থে নির্বাচনের ঘোষণা আসবে সেদিন এই দেশে আপনারা থাকতে পারবেন না। টিকেও থাকবেন না।

এ সময় তিনি ঢাকা শহরের জলাবদ্ধতার প্রসঙ্গ তুলে তিনি বলেন, আমি ঢাকা সিটির মেয়র ছিলাম, আগে যে ড্রেন করা হয়েছিল সেটাই জল্যবদ্ধতা দূর করার জন্য যথেস্ত ছিল। শহরের মধ্যে এতো খোরা-খুরি না করে যে জায়গা দিয়ে পানি শহর থেকে বের হয়ে যায় সেই যায়গা গুলো ভুমি দোস্যুদের হাত থেকে উদ্ধার করে ড্রেনের স্বাভাবিজ প্রবাহ ফিরে নিয়ে আসলেই জলাবদ্ধতা দূর হয়ে যাবে।

Post a Comment

বাংলাদেশ

[National][fbig1]

ঢাকা উত্তর

[Dhaka North][slider2]

ঢাকা দক্ষিন

[Dhaka South][slider2]

আন্তর্জাতিক

[International_News][gallery2]

ঢাকা উপজেলা

[Dhaka Upazila][fbig2 animated]

রাজনীতি

[political_news][carousel2]

অপরাধ

[Crime][slider2]
Powered by Blogger.