বনানীর রেইনট্রি হোটেলে দুই শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের মামলায় আপন জুয়েলার্সের কর্ণধার দিলদার আহমেদের ছেলে সাফাত আহমেদের দেহরক্ষী রহমত আলীকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

বনানী ধর্ষণ মামলা : সাফাতের দেহরক্ষী কারাগারে

শনিবার মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশের উইমেন সাপোর্ট অ্যান্ড ইনভেস্টিগেশন ডিভিশনের (ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টার) পরিদর্শক ইসমত আরা এমি তিন দিনের রিমান্ড শেষে রহমত আলীকে আদালতে হাজির করে তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন। অপরদিকে রহমতের আইনজীবী হেমায়েত উদ্দিন মোল্লা তার জামিনের প্রার্থনা করেন।
উভয়পক্ষের শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম দেবব্রত বিশ্বাস জামিন নামঞ্জুর করে রহমত আলীকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। গত ১৬ মে রহমত আলীর তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। সাফাতের গাড়ির ড্রাইভার বিল্লাল হোসেন রিমান্ডে রয়েছেন। ওই দিন আদালত তার চার দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।
মামলার অন্যতম আসামি নাঈম আশরাফ সাত দিনের রিমান্ডে রয়েছেন। ১৮ মে তার রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।

গত ২৮ মার্চ বন্ধুর সঙ্গে জন্মদিনের অনুষ্ঠানে গিয়ে বনানীর ‘দি রেইনট্রি’ হোটেলে ধর্ষণের শিকার হন বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া দুই তরুণী। ওই ঘটনায় ৬ মে রাজধানীর বনানী থানায় আপন জুয়েলার্সের মালিক দিলদার আহমেদের ছেলে সাফাত আহমেদ, নাঈম আশরাফ (সিরাজগঞ্জের আবদুল হালিম) ও সাদমান সাকিফসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে মামলা করেন।

Post a Comment

বাংলাদেশ

[National][fbig1]

ঢাকা উত্তর

[Dhaka North][slider2]

ঢাকা দক্ষিন

[Dhaka South][slider2]

আন্তর্জাতিক

[International_News][gallery2]

ঢাকা উপজেলা

[Dhaka Upazila][fbig2 animated]

রাজনীতি

[political_news][carousel2]

অপরাধ

[Crime][slider2]
Powered by Blogger.