নির্দিষ্ট সময়ের আগেই এবার বর্ষা দেখা দিয়েছে প্রকৃতিতে। আর বর্ষা মানেই নগরবাসীর মনে ডেঙ্গু আতঙ্ক। এমনিতেই মশাবাহিত চিকুনগুনিয়ার প্রকোপ কাটেনি, এরিমধ্যে চলে এসেছে বর্ষা। 


আমাদের দেশে জুন ও জুলাই অর্থাৎ বর্ষাতেই দেখা দেয় ডেঙ্গুজ্বরের প্রকোপ। জীবানুবাহিত মশক নিধনের মাধ্যমেই সম্ভব ডেঙ্গু মোকাবিলা কারণ ডেঙ্গুর সরাসরি কোনো প্রতিষেধক নেই, রোগীর লক্ষণ বুঝেই সাধারণত এর চিকিৎসা দেওয়া হয়।

আসছে বর্ষা তাই ডেঙ্গু মোকাবিলায় অর্থাৎ মশক নিধনে ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের কি উদ্যোগ তা বলেছে করপোরেশন দুটির প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা। এ বিষয়ে ডিএসসিসি’র প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ডা. শেখ সালাহউদ্দিন বলেন, মশক নিয়ন্ত্রণে পূর্বের যেকোনো সময়ের চেয়ে এবার অধিক কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়েছে। ইতোমধ্যে আমরা প্রতিটি ওয়ার্ডে মশক নিধনে ক্রাশ প্রোগ্রাম শুরু করেছি। ৩১০ কি.মি. নর্দমা পরিষ্কার করা হয়েছে এবং তাতে মশক নিধন ওষুধ স্প্রে করা হয়েছে। এছাড়া এবারই প্রথম দুটি পিকআপ ভ্যান ব্যবহার হচ্ছে এই কাজে। এসব ভ্যানে দুটি ফগার মেশিন দিয়ে রাস্তার দুই ধারে ওষুধ স্প্রে করা হচ্ছে। আর বাসাবাড়ির মশা নিধন আমাদের পক্ষে তো সম্ভব নয়।

এক্ষেত্রে নাগরিক সচেতনতা বাড়াতে লিফলেট, পোস্টার বিতরণসহ ১০টি টিভি চ্যানেলে টিভিসি প্রচার কার হয়েছে। যে ওষুধ স্প্রে করা হচ্ছে তা কতটুকু কার্যকর? জবাবে এই স্বাস্থ্য কর্মকর্তা বলেন, আমরা পূর্বের ওষুধ বাতিল করে নতুন ওষুধ পরীক্ষা নিরীক্ষা করেই এবার ব্যবহার করছি। এ ওষুধে অবশ্যই সুফল পাওয়া যাবে বলে আমরা মনে করি।

ডিএনসিসি’র প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ডা. এসএমএম সালেহ ভূঁইয়া বলেন, ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে আমরা পুরোপুরি প্রস্তুত। মশক নিধনে নিয়মিত আমাদের ক্রাশ প্রোগ্রাম চলছে। বর্ষায় এ প্রোগ্রাম আরো জোরদার করা হবে। সব মিলিয়ে এ বছর ডেঙ্গু আমাদের নিয়ন্ত্রণে থাকবে বলেই আমি মনে করি। কিন্তু সিটি করপোরেশনের মশক নিধন কার্যক্রম নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ও পরিবেশবাদীরা।

এ বিষয়ে হেলথ অ্যান্ড হোপ হাসপাতালের চেয়ারম্যান ও পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলনের যুগ্ম সম্পাদক ডা. লেলিন বলেন, মশা নিধনের প্রচলিত যেসব কার্যক্রম বর্তমানে আছে তা কার্যকর বলে মনে হয় না। শুধু নর্দমায় মশা নিধনের ওষুধ ছিটিয়ে মশার বিস্তার রোধ করা সম্ভব নয়। ডেঙ্গু বাহিত মশার বিস্তার রোধ করতে হলে বিভিন্ন স্থানে জমে থাকা পানিও অপসারণ করতে হবে। সিটি করপোরেশনগুলোর ওষুধ ছিটানোর ক্ষেত্রে এ বিষয়টি বিবেচনায় নেয়া উচিত।

Post a Comment

বাংলাদেশ

[National][fbig1]

ঢাকা উত্তর

[Dhaka North][slider2]

ঢাকা দক্ষিন

[Dhaka South][slider2]

আন্তর্জাতিক

[International_News][gallery2]

ঢাকা উপজেলা

[Dhaka Upazila][fbig2 animated]

রাজনীতি

[political_news][carousel2]

অপরাধ

[Crime][slider2]
Powered by Blogger.