প্রকৃতিগতভাবেই মানুষের দেহ যেকোনো রোগের আক্রমণের বিরুদ্ধে নিজেই লড়াই করে। রোগাক্রান্ত হলে নিজেকে সারিয়ে তোলে ‘ইমিউন সিস্টেম’ বা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা।

ওষুধ ছাড়া সুস্থ থাকতে চান? তেহলে জেনে নিন

ইমিউন সিস্টেম  ভাইরাস, ব্যাকটেরিয়া বা অন্যান্য জীবাণু দেহে প্রবেশে বাধা দেয়। তবে এই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে আরো শক্তিশালী করে তুলতে পারে আপনার ভূমিকা—

১. ভিটামিন ডি-তে মনোযোগ দিন
এই ভিটামিন সব সময়ই হাড়কে শক্তিশালী করে। সাম্প্রতিক কিছু গবেষণায় দেখা গেছে, দেহে সঠিক পরিমাণ ভিটামিন ডি থাকা জরুরি। এতে ডায়াবেটিস, কার্ডিওভাসকুলার রোগ, এমনকি ক্যান্সার প্রতিরোধী ক্ষমতা বেড়ে যায়। যথেষ্ট পরিমাণ ভিটমিন ডি থাকা অদম্য রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থার লক্ষণ প্রকাশ করে। এ উপাদানের সবচেয়ে বড় উৎস সূর্য। এ ছাড়া মাশরুম, ডিমের কুসুম, চর্বিযুক্ত মাছে এই ভিটামিন মেলে।

২. রসুনের সহযোগিতা
পুরনো আমল থেকেই সুপারফুড হিসেবে সুপরিচিত রসুন। এর আরেকটি গুণ হলো, আপনার দেহের রোগ সামলানোর ক্ষমতা বৃদ্ধি করবে। এর সঙ্গে অন্যান্য সমস্যায়ও সমাধান হিসেবে কাজ করে রসুন।

৩. গ্রিন টি পান করুন
ইমিউন সিস্টেমকে সুষ্ঠুভাবে ঢেলে সাজাতে হার্বাল চায়ের তুলনা নেই। জরাগ্রস্ত অবস্থা থেকে দ্রুত সেরে উঠতে গ্রিন টি বেশ কাজের হয়ে ওঠে। নিয়মিত এই চা পান করুন। সুফল দ্রুতই বুঝতে পারবেন।

৪. হালকা ব্যায়াম
সুস্থ থাকার কার্যকর উপায়গুলোর একটি ব্যায়াম। আপনি অভ্যস্ত না হলেও সমস্যা নেই। ব্যাপক ব্যায়ামেরও প্রয়োজন নেই। হালকা ব্যায়ামই যথেষ্ট। হাঁটাহাঁটি, ইয়োগা বা দৌড়াদৌড়িতেই রোগবালাই দূরে থাকবে।

৫. প্রক্রিয়াজাত খাবার থেকে দূরে থাকুন
খাবার খেয়ে অসুস্থ হতে না চাইলে প্রক্রিয়াজাত খাবার থেকে দূরে থাকুন। এসবই অস্বাস্থ্যকর খাবার। অন্যান্য পুষ্টিকর খাবার বেছে নিন। প্রসেসড ফুডে রোগ ঠেকানোর শক্তি দুর্বল হয়ে পড়ে।

৬. যথেষ্ট বিশ্রাম নিন
দেহের সুস্থতা ও রোগ প্রতিরোধী ব্যবস্থাকে অটুট রাখতে পর্যাপ্ত বিশ্রাম নিতে হবে। বিশেষ করে রাতের ঘুম খুবই জরুরি। এতে কোষগুলো বল ফিরে পায় আর ইমিউন সিস্টেমও দুর্বল থাকে না।

Post a Comment

বাংলাদেশ

[National][fbig1]

ঢাকা উত্তর

[Dhaka North][slider2]

ঢাকা দক্ষিন

[Dhaka South][slider2]

আন্তর্জাতিক

[International_News][gallery2]

ঢাকা উপজেলা

[Dhaka Upazila][fbig2 animated]

রাজনীতি

[political_news][carousel2]

অপরাধ

[Crime][slider2]
Powered by Blogger.