প্রেসক্লাবে বক্তব্য রাখছেন মির্জা ফখরুলআওয়ামী লীগ সরকার দেশের রাজনীতিকে প্রতিবন্ধী এবং দেশের মানুষকে পঙ্গু করে রেখেছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। 

আ. লীগ দেশের রাজনীতিকে প্রতিবন্ধী করে রেখেছে: মির্জা ফখরুল


বিএনপি নির্বাচনে যেতে চায় এবং তাদের ছাড়া কোনও নির্বাচন হবে না বলেও মন্তব্য করেন তিনি।  জাতীয় প্রেসক্লাবে বিএনপির উদ্যোগে ইলিয়াস আলীর গুমের ৫ বছর শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন। 

বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী আজকাল প্রায়ই বিদেশ যাচ্ছেন। এখন আবার গেছেন ভুটানে প্রতিবন্ধীদের আন্তর্জাতিক সংস্থার একটি সেমিনারে যোগ দিতে। কিন্তু দেশের রাজনীতিকে তিনি পুরোপুরি প্রতিবন্ধী করে রেখে দিয়েছেন। মানুষকে সম্পূর্ণ রূপে পঙ্গু করে রেখেছেন। সেই দিক থেকে তার কোনও খেয়াল নেই। এই সরকারের অপকীর্তি বলে শেষ করা যাবে না।’ 

প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফর নিয়ে তিনি বলেন, “ভারত সফরে গিয়ে শেখ হাসিনা কিছুই পায়নি। তিনি (শেখ হাসিনা) বলেন ‘পানি মাঙ্গা, ইলেকট্রিসিটি পায়া, কুছ তো পায়া’। আমাদের অবস্থা এখন ‘কুছ তো পায়ার’ মধ্যে। তিনি কখনই পানি আনতে পারবেন না। কারণ তার জনগণের ভিত্তি নেই। তিনি যদি বাংলাদেশের জনগণের প্রতিনিধি হতেন তাহলে এই তিস্তা চুক্তি সই না হওয়া পযন্ত তিনি অন্য কোনও চুক্তি করতেন না। তিনি এটাকে তার দরকষাকষির বড় হতিয়ার হিসেবে নিতে পারতেন, যে আগে তিস্তার পানিসহ ৫৪টি অভিন্ন নদীর পানির চুক্তি হবে তার পর অন্য চুক্তি। কিন্তু তিনি তা করতে পারেননি, কারণ তার সে শক্তি নেই।” 

‘বিএনপি নির্বাচনে না আসলেও নির্বাচন হবে’- স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিমের এমন বক্তব্যের সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘আপনারা ২০১৪ সালেও একক নির্বাচন করেছেন যেখানে বিরোধী দল নেই। এতে করে আপনাদের সেই নির্বাচন আন্তর্জাতিকভাবে ও বাংলাদেশের মানুষের কাছে গ্রহণযোগ্য হয়নি। বিএনপিকে নির্বাচনে কীভাবে আনবেন সেই চিন্তা করুন। ওই ভয় দেখিয়ে লাভ নেই যে বিএনপি নির্বাচনে না আসলে নিবন্ধন বাতিল হবে।’

ফখরুল আরও বলেন, ‘বাংলাদেশের বৃহৎ রাজনৈতিক দল বিএনপি। বিএনপি ছাড়া বাংলাদেশে কোনও নির্বাচন হবে না। আমরা নির্বাচনে যেতে চাই। তবে নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ তৈরি করতে হবে। যেখানে একজন সহায়ক সরকার থাকবে একই সঙ্গে নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশন থাকবে। অন্যথায় এদেশে কোনও নির্বাচন হতে দেওয়া হবে না।’

বিএনপির নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা দেওয়া নিয়ে ফখরুল বলেন, ‘আওয়ামী লীগ এখন রাজনৈতিকভাবে দেউলিয়া হয়ে গেছে। তারা রাজনৈতিকভাবে বিএনপিকে মোকাবেলা করতে পারছে না। তাই মিথ্যা মামলা-হামলা করে বিএনপিকে ঠেকিয়ে রাখছে। আওয়ামী লীগ জানে যদি তারা বিএনপির নেতাদের নামে মামলা না দেয়, তবে তারা শান্তিতে দেশ চালাতে পারবে না।’

এ সময় বিএনপির মহানগর শাখার নতুন কমিটির উদ্দেশে বলেন, ‘আপনারা রাজনৈতিকভাবে সংঘবদ্ধ হোন। রাজনৈতিক পরিধি আরও বাড়ান। মহানগরের প্রতি মহল্লায় মহল্লায় বিএনপির কমিটি গঠন করে দুর্গ ঘরে তুনুন। যাতে করে ভবিষ্যতে আন্দোলনের মধ্য দিয়ে ও একটি নির্বাচনের মধ্য দিয়ে এ সরকারের পতন ঘটিয়ে গণতান্ত্রিক সরকার প্রতিষ্ঠা করতে পারি।’

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি হাবিব-উন-নবী হোসেল, সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান হাবিব প্রমুখ।

Post a Comment

বাংলাদেশ

[National][fbig1]

ঢাকা উত্তর

[Dhaka North][slider2]

ঢাকা দক্ষিন

[Dhaka South][slider2]

আন্তর্জাতিক

[International_News][gallery2]

ঢাকা উপজেলা

[Dhaka Upazila][fbig2 animated]

রাজনীতি

[political_news][carousel2]

অপরাধ

[Crime][slider2]
Powered by Blogger.