আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, পাকিস্তান সেনাবাহিনীর ১৯৫ জন যুদ্ধাপরাধীর মধ্যে যাঁরা বেঁচে আছেন, একাত্তরে গণহত্যার বিচারের জন্য বাংলাদেশ তাঁদের ফেরত চাইবে। এ জন্য পাকিস্তান সরকারের কাছে আনুষ্ঠানিকভাবে চিঠি দেবে বাংলাদেশ। 

 জীবিত সামরিক যুদ্ধাপরাধীদের ফেরত চাইবে বাংলাদেশ
আজ বুধবার দুপুরে গণহত্যা দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ইন্টারন্যাশনাল অ্যান্ড স্ট্র্যাটেজিক স্টাডিজ (বিজ) আয়োজিত এক সেমিনারে আইনমন্ত্রী এ মন্তব্য করেন। সেমিনারের সমাপনী অধিবেশনে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তৃতা দেন তিনি।

আনিসুল হক বলেন, ‘বাংলাদেশ, ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে সই হওয়া ত্রিপক্ষীয় চুক্তি অনুযায়ী পাকিস্তান সামরিক বাহিনীর ১৯৫ জন যুদ্ধাপরাধীর বিচার করা যাবে না বলে বলা হয়ে থাকে। যাঁরা এটা বলেন, আমি তাদের সঙ্গে দ্বিমত পোষণ করি। এই চুক্তিতে স্পষ্ট করে বলা হয়েছিল, ১৯৫ জন সেনা কর্মকর্তা ও সৈন্যকে দেশে ফিরিয়ে নিয়ে পাকিস্তান তাদের বিচার করবে। সেই অনুযায়ী আমরা তা মেনে নিয়েছিলাম। পাকিস্তান তাদের বিচারের দায়িত্ব নিয়েছিল। কিন্তু দেশে ফেরত নেওয়ার পর পাকিস্তান তাদের বিচার করেনি। যেহেতু পাকিস্তান বিচারের দায়িত্ব পালন না করে চুক্তির শর্ত লঙ্ঘন করেছে, তাই স্বাভাবিকভাবেই ওই যুদ্ধাপরাধীদের বিচার করা আমাদের দায়িত্বের মধ্যে পড়ে যায়।’

আইনমন্ত্রী বলেন, ‘২৫ মার্চ গণহত্যা দিবস হিসেবে জাতীয়ভাবে স্বীকৃতি লাভের পর তা আমাদের এই সব যুদ্ধাপরাধীর আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতে বিচার করার সুযোগ করে দিয়েছে। দ্বিতীয়ত, এই দিবসের কারণে এখন আমরা ওই ১৯৫ জন যুদ্ধাপরাধীর মধ্যে জীবিতদের ফেরত চেয়ে পাকিস্তানের কাছে চিঠি লিখব। মন্ত্রিসভায় এই বিষয় দুটি জোরালোভাবে তুলে ধরব।

Post a Comment

বাংলাদেশ

[National][fbig1]

ঢাকা উত্তর

[Dhaka North][slider2]

ঢাকা দক্ষিন

[Dhaka South][slider2]

আন্তর্জাতিক

[International_News][gallery2]

ঢাকা উপজেলা

[Dhaka Upazila][fbig2 animated]

রাজনীতি

[political_news][carousel2]

অপরাধ

[Crime][slider2]
Powered by Blogger.