শততম টেস্টে বিজয়ের পর প্রথম ওয়ানডেতে দাপুটে জয়। এমন আত্মবিশ্বাস নিয়েই মঙ্গলবার মাঠে নামবে বাংলাদেশ। প্রথম ম্যাচের ওই ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে পারলে প্রথমবারের মতো শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সিরিজ জয় নিশ্চিত হবে। এর আগে বাংলাদেশ ২১ বার ওয়ানডে শিরোপা জিতেছে। 

 

এরমধ্যে মাত্র চারবার বিদেশের মাটিতে। যার সর্বশেষটা ২০০৯ সালে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ৪-১ ব্যবধানে।

মাশরাফির আশা প্রথম ম্যাচের ধারাবাহিকতা বজায় থাকলে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ডাম্বুলাতেই সিরিজ জয় সম্ভব। লঙ্কানদের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচ জেতার পর সেভাবে উদযাপন করেনি বাংলাদেশ। সিরিজ জিতে একবারে উদযাপন করবে সফরকারীরা। সেই হিসেবে কলম্বোতে শেষ ম্যাচ খেলার আগেই ডাম্বুলায় উদযাপনটা সেরে যেতে চায় টাইগাররা।

‘আনলাকি’ ডাম্বুলায় বাংলাদেশ ভাগ্য ফিরিয়ে এনেছিল প্রথম ম্যাচে লঙ্কাকে ৯০ রানে হারানোর মাধ্যমে। এখন এই ভেন্যুতেই নতুন মাইলফলকে পৌঁছানোর অপেক্ষায় থাকা বাংলাদেশ রানগিরি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় বেলা তিনটায় মুখোমুখি হবে স্বাগতিক শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে।

আজ বাংলাদেশ জিতলে কিছুটা হলেও ব্যবধান কমে আসবে। টেস্ট খেলুড়ে দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশ এখন পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়া, শ্রীলঙ্কা ও ইংল্যান্ডের বিপক্ষে কোনও সিরিজ জেতেনি। আজ শ্রীলঙ্কাকে হারাতে পারলে সংখ্যাটা দুইয়ে নেমে আসবে।

ঘরের মাটিতে অপ্রতিরোধ্য হয়ে ওঠা বাংলাদেশের বিদেশের মাটিতে নিজেদের প্রমাণ করার ছিল। চলতি বছরের শুরুতে নিউজিল্যান্ডে গিয়ে জয় না পেলেও লঙ্কানদের বিপক্ষে নিজেদের প্রমাণ করছে। শততম টেস্ট জয়ের পর ওয়ানডেতে নিজেদের আধিপত্য জানান দিতে সক্ষম হয়েছেন মাশরাফিরা।

টানা ৬ সিরিজ জয়ের কারণে আইসিসি র‌্যাংকিংয়ের ৭ নম্বরে উঠে আসে মাশরাফিরা। এরপর গত এক বছর ধরে একই অবস্থানে আছে বাংলাদেশ। লঙ্কানদের বিপক্ষে সিরিজ জয়ের মাধ্যমে বাংলাদেশ ২০১৯ সালে সরাসরি বিশ্বকাপ খেলার পথটা আরও সহজ করার সুযোগ পাবে। আজ জিতলে মাশরাফিদের পয়েন্ট হবে ৯৩। সরাসরি বিশ্বকাপ খেলার পথে তখন অনেকটাই এগিয়ে থাকবে বাংলাদেশ।

যদিও সিরিজ জিততে কঠিন লড়াই করতে হবে টাইগারদের। কেননা শ্রীলঙ্কা যে কোন মূল্যেই চাইবে সিরিজে সমতা ফেরাতে। লঙ্কান ম্যানেজার গুরুসিংহে জানিয়েছেন, সিরিজে ফিরতে মরিয়া তার দল। যে কোনও মূল্যে মঙ্গলবারের ম্যাচটি জিতে ১-১ সমতা আনবে তার দল। কিছু সমস্যা থাকলেও ভালো খেলার ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসের কথা জানান তিনি।

 এতটাই মরিয়া শ্রীলঙ্কা যে দ্বিতীয় ওয়ানডের আগে স্বাগতিকদের সুবিধা কাজে লাগিয়ে পেস বোলিং নির্ভর উইকেট তৈরি করা হয়েছে। আগের ম্যাচের চেয়ে এই উইকেটে আচরণগত পার্থক্য থাকবে। উইকেটে অনেকটাই ঘাস রয়েছে।

লঙ্কান টিম ম্যানজমেন্ট এজন্য মঙ্গলবার দুইজন পেসারকে নতুন করে তালিকাভুক্ত করেছে। যার মধ্যে নুয়ান কুলাসেকারাও রয়েছে। অভিজ্ঞ এই পেসার বাংলাদেশের জন্য হুমকি হয়ে উঠলেও উঠতে পারেন।

যদিও বাংলাদেশের অধিনায়ক এত কিছু নিয়ে ভাবছেন না। যে কোনও পরিস্থিতিতে খেলতেই তার দল পুরোপুরি প্রস্তুত। সতীর্থদের উদ্দেশ্যে তার একটাই চাওয়া, আগের ম্যাচের ধারাবাহিতা। প্রথম ম্যাচের মতো তিন বিভাগে অসাধারণ পারফরম্যান্স করা দলটাকেই চায় বাংলাদেশ। এখন দেখার বিষয় ডাম্বুলাতেই ২২তম সিরিজ জয়ের উদযাপনটা শেষ করতে পারে কিনা টিম বাংলাদেশ।

বাংলাদেশের সম্ভাবনা এইজন্যই বেশি। নতুন করে গুছিয়ে উঠতে থাকা লঙ্কান দলটিতে অনভিজ্ঞতা স্পষ্ট। সর্বশেষ হোমসিরিজে অস্ট্রেলিয়ার কাছে নাস্তানাবুদ হয়েছে তারা ৪-১ ব্যবধানে। এর আগে দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে ওয়ানডে সিরিজে সবগুলো ম্যাচই বড় ব্যবধানে হেরেছে। এমন সমীকরণ যখন লঙ্কানদের সামনে। তখন নানা চাপ তাদের চেপে ধরছে।

Post a Comment

বাংলাদেশ

[National][fbig1]

ঢাকা উত্তর

[Dhaka North][slider2]

ঢাকা দক্ষিন

[Dhaka South][slider2]

আন্তর্জাতিক

[International_News][gallery2]

ঢাকা উপজেলা

[Dhaka Upazila][fbig2 animated]

রাজনীতি

[political_news][carousel2]

অপরাধ

[Crime][slider2]
Powered by Blogger.