মালিবাগে উড়াল সেতুর গার্ডার ভেঙে আহত দুইজনের পা কেটে ফেলা হয়েছে। এদের একজন এলজিইডি প্রকৌশলী। তার নাম পলাশ বরণ ধর। বয়স ৪০ বছর। 

উড়াল সেতুর গার্ডার চাপায় পা হারালেন দুইজন

তার বাড়ি চট্টগ্রাম জেলার বাঁশখালী উপজেলায়। ঘটনার সময় তিনি সাইটে দায়িত্ব পালন করছিলেন। গার্ডার ভেঙে পায়ের উপর পড়লে ঘটনাস্থলেই তার পা কাটা পড়ে। উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পর তার পায়ের অপারেশন করে রক্তপাত বন্ধ করা হয় এবং হাঁটুর উপরে ভেঙে যাওয়া অংশ অপারেশনের মাধ্যমে পুনঃস্থাপিত করা হয়।
সোমবার সন্ধ্যায়এসব জানান প্রকৌশলী পলাশের বন্ধু বেসরকারি কোম্পানীতে চাকুরিরত ইমরান হায়দার। তিনি জানান, পলাশ রাতে মালিবাগের সাইটে কাজ করছিল। যখন গার্ডারটি পড়ে তখন সে ওখানেই দায়িত্বপালন করছিলেন। বর্তমানে তিনি চিকিৎসকদের অবজারভেশনে আছেন।
একই সাথে আহত নূর নবী (৪৫) এর পাও কেটে গেছে তাকেও চিকিৎসা দিয়ে অবজারভেশনে রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ঢাকা মেডিকেল প্রতিনিধি মোস্তাফিজুর রহমান। ঘটনায় ৩ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। স্থানীয় সরকার প্রকৌশলের (এলজিইডি) অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলি আবুল কালাম আজাদের নেতৃত্বে এই কমিটি গঠন করা হয়েছে বলে জানান দক্ষিণের মেয়র সাঈদ খোকন।
সোমবার দুপুরে ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে মেয়র সাঈদ খোকন বলেন, এ ঘটনায় নির্মান প্রতিষ্ঠানের গাফেলতির প্রমান পাওয়া গেলে কঠোর শাস্তি মূলক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। পাশাপাশি হতাহতাদের ক্ষতিপূরণও দেওয়ার আশ্বাস দেন মেয়র সাঈদ খোকন।
তিনি বলেন, ঘটনার পর সেতুমন্ত্রীর সঙ্গে তার কথা হয়েছে। মন্ত্রীও জড়িতদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন। এছাড়া গাফলতির প্রমাণ পাওয়া গেলে দেষীদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনা হবে।
নিম্নমানের মালামাল দিয়ে ফ্লাইওভার তৈরির অভিযোগ বিষয়ে মেয়রকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, এই বিষয়টিও তদন্ত কমিটি খতিয়ে দেখছে। সেখানে নির্মান প্রতিষ্ঠান তমা কনস্টাকশনের বিরুদ্ধে নিম্নমানের মালামাল সরবরাহের অভিযোগ পাওয়া গেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
রোববার শেষ রাতের দিকে রাজধানীর মালিবাগ রেলগেট এলাকায় নির্মাণাধীন ফ্লাইওভারের গার্ডার ভেঙে মো. স্বপন (৪২) নামে এক নির্মাণ শ্রমিক নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন তমা কনস্ট্রাকশনসের ইঞ্জিনিয়ার পলাশ (৪০) ও শাহ সিমেন্টের ট্রাকচালক নূর নবী (৪৫)। এ ঘটনায় ভেঙে পড়া গার্ডারটি রেল লাইনের উপর পড়ায় কমলাপুর থেকে দেশের বিভিন্ন রুটে ছেড়ে যাওয়া সব ট্রেন চলাচল প্রায় ৫ ঘণ্টা বন্ধ ছিল। পরে ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা গার্ডারটি রেল লাইনের উপর থেকে সরালে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়।
এর আগে ২০১২ সালে চট্টগ্রাম নগরের বহদ্দারহাট জংশনে নির্মাণাধীন ফ্লাইওভারের গার্ডার ভেঙে অন্তত ১৩ জন নিহত হয়েছিলেন।

Post a Comment

বাংলাদেশ

[National][fbig1]

ঢাকা উত্তর

[Dhaka North][slider2]

ঢাকা দক্ষিন

[Dhaka South][slider2]

আন্তর্জাতিক

[International_News][gallery2]

ঢাকা উপজেলা

[Dhaka Upazila][fbig2 animated]

রাজনীতি

[political_news][carousel2]

অপরাধ

[Crime][slider2]
Powered by Blogger.