পুরান ঢাকার শাঁখারীবাজার, তাঁতীবাজার ও আশপাশের এলাকায় ওয়াসার পানিতে ময়লা ও দুর্গন্ধের মাত্রা বেড়েছে। পানির সরবরাহ থাকলেও ময়লা ও দুর্গন্ধের কারণে এসব এলাকার বাসিন্দারা কষ্ট করছেন। যত দিন যাচ্ছে এলাকায় ওয়াসার পানির লাইন আরও খারাপ হচ্ছে বলে জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

পুরান ঢাকায় পানি আরও দূষিত
কোতোয়ালি রোড এলাকার পানির কল থেকে এসব এলাকার বাসিন্দারা পানি সংগ্রহ করলেও তাতে সমস্যার সামান্যই সুরাহা হচ্ছে বলে গতকাল রোববার জানা যায়।
শাঁখারীবাজারে শনির মন্দিরের কাছে চাপকল আছে। আগে সেখান থেকে এলাকাবাসী পানি সংগ্রহ করতেন। কিন্তু এখন সেখানে ভিড় কম। স্থানীয় কয়েকজন দোকানি জানান, এখানেও পানি আসছে ময়লা ও দুর্গন্ধযুক্ত। তাই ভিড়ও কম। রাজার দেউড়ি পানির পাম্পের বাইরে একটি কল আছে। সেখানে গোসলও করছেন অনেকে। রাজার দেউড়ি ছাড়াও শাঁখারীবাজার, এমনকি তাঁতীবাজার, রাখাল চন্দ্র বসাক লেন, রাধিকা মোহন বসাক লেন ও আশপাশের এলাকায় বাসিন্দারাও সেখান থেকে পানি সংগ্রহ করেন। তাঁরা জানান, এলাকায় ওয়াসার সরবরাহ করা পানি ময়লা ও দুর্গন্ধে ভরা। পানিটোলার বাসিন্দা তরুণ ঘোষ বলেন, এই পানি খাওয়া দূরে থাক, ব্যবহারেরও অযোগ্য।

পানিটোলা ১৪ নম্বর বাড়ির কাছে রাস্তায় এবং বিপরীত দিকে দুটি কল রয়েছে, কলের মুখে অনেক দিন ধরেই ছাঁকনি বাঁধা। কারণ, ভালো পানি আসছে না। তার মধ্যেই কলপাড়ে নিয়মিত কলস, জারের সারি থাকে।
ঢাকা ওয়াসার স্থানীয় আঞ্চলিক কার্যালয় থেকে বলা হয়, পুরান ঢাকায় সরবরাহ করা পানি আসে সোয়ারীঘাট-সংলগ্ন চাঁদনীঘাট শোধনাগার থেকে। সে পানি এখন শোধনের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। গভীর নলকূপ থেকে তোলা পানিও দূষিত। অবৈধ সংযোগ নিতে গিয়ে অনেকে পাইপ ফুটো করে ফেলে। সে পথে ময়লা ঢোকে। তবে নতুন পাইপলাইন বসানোর কথা। কাজটি হলে নলকূপে বিশুদ্ধ পানি আসতে পারে।

বাসাবাড়ি ও রাস্তার কলে ঢাকা ওয়াসার পানিতে দুর্গন্ধ, তাই পুরান ঢাকায় পানির কষ্ট। এই কষ্টকে কিছুটা লাগব করছে ব্যক্তি উদ্যোগে বসানো একটি গভীর নলকূপের পানি। কোতোয়ালি রোডের মুখে এই গভীর নলকূপের পানি সংগ্রহ করতে প্রতিদিন প্রচুর ভিড় হচ্ছে।

শাঁখারীবাজারের পশ্চিম প্রান্তে তাঁতীবাজারে ঢোকার মুখে ৩/৪ কোতোয়ালি রোডে বৈধভাবে একটি গভীর নলকূপ বসানো হয়েছে প্রায় তিন মাস আগে। সেখান থেকে পানি বিতরণ হয় নামমাত্র দাম নিয়ে। সেখানে পানি সংগ্রহ করেন আশপাশের এলাকার বাসিন্দা এবং দোকানের লোকজন। গভীর নলকূপের পানি নলের মাধ্যমে বোতলে দেওয়া হয়। পাঁচ লিটারের নিজস্ব জারে পানি ভর্তি করে বিক্রি হয় চার থেকে পাঁচ টাকা। দুই লিটারের বোতল সর্বোচ্চ দুই টাকা। তবে পুরো এলাকার পানির চাহিদা এখান থেকে মেটানো সম্ভব নয় বলে বিক্রেতারা জানান।

Post a Comment

বাংলাদেশ

[National][fbig1]

ঢাকা উত্তর

[Dhaka North][slider2]

ঢাকা দক্ষিন

[Dhaka South][slider2]

আন্তর্জাতিক

[International_News][gallery2]

ঢাকা উপজেলা

[Dhaka Upazila][fbig2 animated]

রাজনীতি

[political_news][carousel2]

অপরাধ

[Crime][slider2]
Powered by Blogger.