চিলির বিপক্ষে রাশিয়া বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে কঠিন এক লড়াইয়েই নেমেছিল আর্জেন্টিনা। একেবারে খাদের কিনারায় দাঁড়িয়ে লিওনেল মেসির আর্জেন্টিনা। ২০১৮ বিশ্বকাপ খেলতে পারবে তো তারা? এটাই ছিল ভক্ত-সমর্থকদের মনে সবচেয়ে বড় প্রশ্ন।
একে তো চিলি সেই প্রতিপক্ষ যারা পরপর দুবার আর্জেন্টিনাকে কোপা আমেরিকার ফাইনালে হারিয়েছে। তারওপর ছিল বাছাইপর্ব থেকে ছিটকে যাওয়ার ভয়। সব মিলিয়ে কঠিন এক পরিস্থিতিই তৈরি হয়েছিল লিওনেল মেসিদের। তবে কঠিন এ পরিস্থিতি থেকে মেসিই উদ্ধার করেছে আর্জেন্টিনাকে।
বুয়েন্স আইরেসে বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের হাইভোল্টেজ ম্যাচে চিলিকে ১-০ ব্যবধানে হারিয়ে মূল্যবান তিন পয়েন্ট নিশ্চিত করেছে আর্জেন্টিনা। প্রথমার্ধেই পেনাল্টি থেকে একমাত্র গোলটি করেন লিওনেল মেসি। পয়েন্ট টেবিলে চিলিকে টপকে শীর্ষ তিনে উঠে এসেছে আলবিসেলেস্তেরা।
তবে এরপরও বলা বাহুল্য, বড় বাঁচা বেঁচে গেছেন মেসিরা। খেলার ৬ মিনিটে সানচেজের ক্রসে মাথা ছুঁইয়ে স্বাগতিকদের স্তব্ধ করে দেন পেদ্রো ফুয়েনজালিদা। কিন্তু অফ-সাইডের কারণে সেটি বাতিল হয়। এরপর ১৫ মিনিটে চিলির রক্ষণের ভুলে পাওয়া পেনাল্টি থেকে আর্জেন্টিনাকে এগিয়ে নেন বার্সেলোনার তারকা লিওলেন মেসি।
হাভিয়ের মাসচেরানোর বাড়ানো পাস বক্সের ভেতর আঞ্জেল দি মারিয়া নিয়ন্ত্রণে নিতে যাওয়ার আগ মুহূর্তে তাকে বাজে ট্যাকল করেন চিলিয়ান ডিফেন্ডার ফুয়েনজালিদা। স্পট কিক থেকে মেসি তার এক সময়কার বার্সেলোনা সতীর্থ গোলরক্ষক ক্লাউদিও ব্রাভোকে বোকা বানিয়ে দলকে এগিয়ে নেন পাঁচবারের ব্যালন ডি’অর জয়ী। এর মাধ্যমে আর্জেন্টিনার জার্সিতে মেসি নিজের গোল সংখ্যা নিয়ে গেলেন ৫৮-তে।
প্রথমার্ধে ব্যবধান দ্বিগুণ করার দারুণ সুযোগ পেয়েছিল স্বাগতিকরা। বিরতিতে যাওয়ার মিনিট খানেক আগে সহজ সুযোগটা নষ্ট করেছেন নিকোলাস ওতামেন্দি।
মেসির নেয়া ফ্রি-কিক চিলির এক ডিফেন্ডারের গায়ে লেগে যাচ্ছিল গোললাইনের দিকে, সামনে এগিয়ে আসা ওতামেন্দি ফাঁকায় বল পেয়ে যান। কিন্তু গোলপোস্টের সামনে শুধু ব্রাভোকে পেয়েও তিনি বল উড়িয়ে মারেন বারের ওপর দিয়ে।
দ্বিতীয়ার্ধে অবশ্য চিলি ঘুরে দাঁড়ানোর আপ্রাণ চেষ্টা করেছে। সুযোগও তৈরি করেছে বেশ কয়েকটি। সবচেয়ে ভালো সুযোগটা পেয়েছিল ৬৪ মিনিটে, বক্সের খানিকটা বাইরে থেকে নেয়া সানচেজের ফ্রি-কিক পোস্টে লেগে ফিরে আসে।
শেষ পর্যন্ত তাদের সব চেষ্টা ব্যর্থ হওয়ায় আর্জেন্টিনা ১-০ গোলের সঙ্গে গুরুত্বপূর্ণ ৩ পয়েন্ট নিয়ে ছাড়ে মাঠ। এতে ল্যাটিন আমেরিকা অঞ্চলের বিশ্বকাপ বাছাইয়ে পাঁচ থেকে এক লাফে তিনে উঠে এসেছেন মেসিরা। ১৩ ম্যাচ শেষে আর্জেন্টিনার পয়েন্ট ২২। আর ২০ পয়েন্ট নিয়ে হেরে যাওয়া চিলি নেমে গেছে ষষ্ঠ স্থানে।
অবশ্য এই ম্যাচের মধ্য দিয়ে এক রকম প্রতিশোধ নিয়েছে আর্জেন্টিনা। কারণ এই চিলির বিপক্ষে আর্জেন্টিনা হেরেছে টানা দুটি কোপা আমেরিকার ফাইনাল।

Post a Comment

বাংলাদেশ

[National][fbig1]

ঢাকা উত্তর

[Dhaka North][slider2]

ঢাকা দক্ষিন

[Dhaka South][slider2]

আন্তর্জাতিক

[International_News][gallery2]

ঢাকা উপজেলা

[Dhaka Upazila][fbig2 animated]

রাজনীতি

[political_news][carousel2]

অপরাধ

[Crime][slider2]
Powered by Blogger.