বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের যুগান্তকারী ভাষণের জন্য দিনটি ইতিহাসে বিশেষভাবে স্মরণীয় হয়ে আছে। বাঙালি জাতির ইতিহাসের সবচেয়ে তাৎপর্যপূর্ণ ওই ভাষণটি তিনি ১৯৭১ সালের উত্তাল এই দিনে তৎকালীন রেসকোর্স ময়দানে (বর্তমান সোহরাওয়ার্দী উদ্যান) প্রদান করেছিলেন। 

আজ ঐতিহাসিক ৭ মার্চ আজ

যা পরবর্তীতে বিশ্বের শ্রেষ্ঠ ভাষণগুলোর অন্যতম হিসেবে বিবেচিত হয়ে আসছে, সমসাময়িক দেশীয় রাজনীতিতেও প্রভাবক হিসেবে কাজ করে অমর ওই ভাষণটি।
স্বাধীনতার স্বপ্নে বিভোর লাখো জনতার উদ্দেশে বাঙালির  অবিসংবাদিত নেতা বঙ্গবন্ধু ওইদিন বলেছিলেন, ‘এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম’। ১৯৭০ সালের জাতীয় নির্বাচনে সংখ্যাগরিষ্ঠতা লাভ করা আওয়ামী লীগের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর ঠেকাতে পশ্চিম পাকিস্তানীদদের টালবাহানায় মুক্তিপাগল বাঙ্গালি বিক্ষুব্দ হয়ে ওঠেছিল। ৩ মার্চের জাতীয় কাউন্সিলের অধিবেশন অনির্দিষ্টকালের জন্য মূলতবি ঘোষণা করা হলে ২ ও ৩ মার্চ দেশব্যাপী হরতাল পালিত হয়।

এমন পরিস্থিতিতে ৭ই মার্চের ভাষণ স্বাধীনতাকামী বাঙ্গালীদের সামনে দিকনির্দেশনা নিয়ে আসে। যা  সেই অপেক্ষার অবসান ঘটায়। যা বিদ্যুৎ-গতিতে সারা দেশে ছড়িয়ে পড়ে। ওইদিন বেলা তিনটা ২০ মিনিটে বঙ্গবন্ধু রেসকোর্স ময়দানে উপস্থিত হন। তখন লাখো মানুষের উপস্থিতিতে রেসকোর্স ময়দান ছিল কানায় কানায় পূর্ণ। স্লোগান ছিল পুরো ময়দানজুড়ে ‘পদ্মা মেঘনা যমুনা, তোমার আমার ঠিকানা’।

১৯ মিনিটের জ্বালাময়ী ভাষণে বঙ্গবন্ধু যুদ্ধের প্রস্তুতি নিতে নির্দেশ দিয়ে বলেছিলেন, ‘প্রত্যেক ঘরে ঘরে দুর্গ গড়ে তোলো। তোমাদের যা কিছু আছে তাই নিয়ে শত্রুর মোকাবিলা করতে হবে’। যুদ্ধের দিনগুলোতে যা অনুপ্রাণিত করে গেছে বাঙালিদের। রাষ্ট্রীয়ভাবে ঐতিহাসিক আজকের দিনটি যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন করা হবে। পাশাপাশি বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও সংগঠন ৭ মার্চ উপলক্ষে বিভিন্ন কর্মসূচি হাতে নিয়েছে।

দিনটি উপলক্ষে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ আজ সকাল সাড়ে ছয়টায় বঙ্গবন্ধু ভবন ও দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন করবে। সাতটায় বঙ্গবন্ধু ভবন প্রাঙ্গণে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানাবে দলটির নেতাকর্মীরা। পাশাপাশি সকাল ৮ টায় দেশব্যাপী ঐতিহাসিক ভাষণটি প্রচার ও সভা-সমাবেশের আয়োজন করা হবে।

দিনটি উপলক্ষে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এক বিবৃতিতে দিনটি যথাযোগ্য মর্যাদায় পালনের জন্য দলীয় নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। বিবৃতিতে তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ যুগে যুগে বাঙালি জাতিকে শক্তি ও সাহস যুগাবে। এই ঐতিহাসিক ভাষণ বাঙালি জাতির ইতিহাসে চিরন্তন ও সার্বজনীন হয়ে থাকবে।

কাদের বলেন, হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ মার্চের ভাষণটি একটি ধ্রুপদি শিল্প হয়ে বিশ্বের বিভিন্ন পুস্তকে অন্তর্ভুক্ত হয়েছে। বাঙালি জাতির নিরন্তর লড়াই ও মুক্তির সংগ্রামে ৭ মার্চের ভাষণ অবিনাশী চেতনা নিয়ে বারবার ফিরে আসে।

Post a Comment

বাংলাদেশ

[National][fbig1]

ঢাকা উত্তর

[Dhaka North][slider2]

ঢাকা দক্ষিন

[Dhaka South][slider2]

আন্তর্জাতিক

[International_News][gallery2]

ঢাকা উপজেলা

[Dhaka Upazila][fbig2 animated]

রাজনীতি

[political_news][carousel2]

অপরাধ

[Crime][slider2]
Powered by Blogger.