কাল দিনভর রোদ ছিল, আজ হঠাৎ বৃষ্টি। রোদেলা মন ভিজে গেল। উড়ু উড়ু মন চাইল, রুচি বদল হোক। চাই সুস্বাদু কিছু অন্য রকম খাবার। বৃষ্টির দিন ভেজা ভেজা আবহাওয়ায় ‘খিচুড়ি’ হলে আর কী চাই!  সঙ্গে ডিম ভাজি বা ভুনা? মখো মাখো ঝোলে মাংস? আর একটুখানি আচার? এক কথায় উফ, দারুণ! অন্য দেশে কি বৃষ্টিমুখর দিনে খাবারের বিশেষ আয়োজন চলে? চলুন না, ফিলিপাইনের রসুইঘরে একটুখানি ঘুরে আসি।

হঠাৎ বৃষ্টিতে যা খেতে পারেন
মাছের ঝোল
মাছের ঝোল: দ্রুত, খুব সহজে তৈরি করতে পারেন মাছের একধরনের ঝোল বা স্যুপ। রসুন, পেঁয়াজ ও আদা দিয়ে মাছ সেদ্ধ করে নিতে পারেন। এর সঙ্গে দিতে পারেন শজনেপাতা বা স্বাদ বাড়ানোর মতো অন্য কোনো সবুজ পাতা। এ ধরনের সবুজ পাতা মেজাজ ভালো রাখতে কাজ দেয়। মাছ হিসেবে চর্বিযুক্ত টুনা বেছে নিতে পারেন। এ ধরনের মাছকে ‘মুড বুস্টার’ বলা হয়। সাধারণ স্যুপ তৈরিতে মাছের সঙ্গে পেঁয়াজ ও টমেটো সেদ্ধ করে এতে লেমনগ্রাস যুক্ত করে খেতে পারেন। বাদামি চালের ভাতের সঙ্গে এ তরকারি খেলে অনেকক্ষণ শরীরে শক্তি থাকবে। মন থাকবে চনমনে।
হঠাৎ বৃষ্টিতে যা খেতে পারেন

চকলেট ওটমিল: ওটের সঙ্গে গরম পানি মেশান। এতে গাঢ় চকলেট ব্যবহার করুন। এর সঙ্গে প্রাকৃতিক মিষ্টি হিসেবে নারকেলের চিনি (কোকোনাট সুগার) যুক্ত করতে পারেন। অতিরিক্ত মিষ্টি ও শক্তি বাড়াতে কলা এর সঙ্গে নিতে পারেন। এ সময় কলা মেজাজ ভালো রাখতে সাহায্য করবে।


হঠাৎ বৃষ্টিতে যা খেতে পারেন
মিষ্টি আলু সেদ্ধ: গরম-গরম আলুভর্তা বৃষ্টির দিনের জন্য স্বস্তিদায়ক এক খাবার হতে পারে। আলুকে উচ্চ গ্লাইসেমিক ইনডেস্ক (জিআই) খাবারের মধ্যে ফেলা হয়। সাধারণত, সাদা চিনির মতো উচ্চ জিআই খাবারে হঠাৎ শক্তি বেড়ে যায় এবং এ শক্তি দ্রুত অবসাদে পরিণত হয়। অন্যদিকে, কম জিআই খাবারে দীর্ঘস্থায়ী ও স্থিতিশীল শক্তি থাকে শরীরে। তাই মিষ্টি আলু বেছে নিতে পারেন। শুধু সেদ্ধ করে বা পুড়িয়ে এটা ভর্তা করে খাওয়া যায়।

হঠাৎ বৃষ্টিতে যা খেতে পারেন
নারকেল দুধের স্যুপ: রাইস বল, সাগুসহ অন্য মূল শস্য মিশিয়ে নারকেলের দুধ দিয়ে রান্না করে বৃষ্টির দিনে খাওয়া যায়। বৃষ্টির দিনে উষ্ণ ও স্বস্তিদায়ক খাবার হিসেবে এটি দুর্দান্ত।

হঠাৎ বৃষ্টিতে যা খেতে পারেন
স্কোয়াশ স্যুপ: বৃষ্টির শীতল দিনে কিছুটা উষ্ণতা জোগাতে পারে পুষ্টিগুণে ভরপুর স্যুপ। কিন্তু সব ধরনের স্যুপ স্বাস্থ্যের জন্য সব সময় ভালো নয়। বৃষ্টির দিনে স্কোয়াশের স্যুপ খাওয়া যেতে পারে। এতে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ও ফলেট নামের উপাদান আছে, যা বৃষ্টির দিনের অবসাদ কাটাতে পারে।

হঠাৎ বৃষ্টিতে যা খেতে পারেন
বার্লি চা: ধোঁয়া ওঠা এক কাপ বার্লি চা পান করার সঙ্গে সঙ্গে মন চাঙা হবে। উদ্বেগ দূর হবে। মনকে প্রশান্ত করে তুলবে। তথ্যসূত্র: র‍্যাপলার, নিউইয়র্ক টাইমস, এনডিটিভি।

Post a Comment

বাংলাদেশ

[National][fbig1]

ঢাকা উত্তর

[Dhaka North][slider2]

ঢাকা দক্ষিন

[Dhaka South][slider2]

আন্তর্জাতিক

[International_News][gallery2]

ঢাকা উপজেলা

[Dhaka Upazila][fbig2 animated]

রাজনীতি

[political_news][carousel2]

অপরাধ

[Crime][slider2]
Powered by Blogger.