বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, ২০২১ সাল নাগাদ চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য রপ্তানি থেকে ৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার আয় হবে। ৭ম পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনায় যে সকল পণ্য রপ্তানিতে অগ্রাধিকার দেয়া হয়েছে চামড়া এর মধ্যে অন্যতম। 

 ২০২১ সালে ৫ বিলিয়ন ডলারের চামড়া রপ্তানি হবে : বাণিজ্যমন্ত্রী

চামড়াজাত পণ্য রপ্তানির ক্ষেত্রে ১৫ শতাংশ এবং যারা সাভার চামড়া শিল্প নগরী থেকে এ সকল পণ্য রপ্তানি করবেন তারা আরো ৫ শতাংশ অর্থাৎ মোট ২০ শতাংশ হারে নগদ প্রনোদনা পাচ্ছেন।  মন্ত্রী বলেন, রপ্তানির ক্ষেত্রে প্রতি বছর একটি পণ্যকে বিশেষ গুরুত্ব দেয়া হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চামড়া ও চামড়াজাত পণ্যকে বর্ষ পণ্য বা প্রোডাক্ট অফ দ্যা ইয়ার-২০১৭ ঘোষণা করেছেন। সরকার সে মোতাবেক এখাতের ব্যবসায়ীসহ সংশ্লষ্টদের প্রয়োজনীয় সহায়তা দিয়ে যাচ্ছে। ওয়েস্টিনে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় প্রোডাক্ট অফ দ্যা ইয়ার-২০১৭ উপলক্ষে আয়োজিত সাংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ মধ্য আয়ের দেশে উন্নীত হবে। এ সময় দেশের রপ্তানি দাঁড়াবে ৬০ বিলিয়ন ডলার। বর্তমানে দেশের রপ্তানির প্রায় ৮১ ভাগ আসে তৈরী পোশাক খাত থেকে। একটি পণ্যের ওপর নির্ভরশীল না থেকে রপ্তানি পণ্য সংখ্যা বৃদ্ধি এবং বাজার সম্প্রসারণের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। 

তিনি আরো বলেন, নতুন পণ্য রপ্তানিতে নগদ আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হচ্ছে। দেশের রপ্তানি খাতকে আরো শক্তিশালী করতে দেশে ২৭০টি সবুজ কারখানা গড়ে তোলা হচ্ছে। ইতোমধ্যে যুক্তরাষ্ট্র বিশে^র ২৫টি কারখানাকে সবুজ কারখানা হিসেবে ঘোষণা করেছে। এর শীর্ষ ১০টির মধ্যে বাংলাদেশের ৭টি কারখানা রয়েছে। 
পোশাক কারখানায় শ্রমিক ইউনিয়ন করা প্রসঙ্গে তোফায়েল আহমেদ বলেন, বাংলাদেশে শ্রমিক অধিকারের বিষয়ে কোন কোন দেশ প্রশ্ন তুলছে, কিন্তু চীন ও ভিয়েতনামে তারা এ নিয়ে কোন প্রশ্ন করছে না। বাংলাদেশ সকল প্রতিবন্ধকতা মোকাবেলা করে সফল রফতানিকারক দেশ হবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

এর আগে আজ সকালে বাণিজ্যমন্ত্রী ঢাকায় হোটেল লা মেরিডিয়ানে বিজিএমইএ ইউনিভার্সিটি অব ফ্যাশন এন্ড টেকনোজি এবং নেদারল্যান্ডস্ ইনিসিয়েটিভ ফর ক্যাপাসিটি ডেভেলপমেন্ট ইন হায়ার এডুকেশন আয়োজিত ‘এনগেজমেন্ট অব স্টেকহোল্ডার্স ফর রিসপনসিবলিটি এন্ড সাসটেইনেবল ভেল্যু চেইন ইন বাংলাদেশ গার্মেন্ট সেক্টর’ শীর্ষক মেঘা ইভেন্টের উদ্বোধন করেন।

চামড়াজাত পণ্য রপ্তানির ক্ষেত্রে ১৫ শতাংশ এবং যারা সাভার চামড়া শিল্প নগরী থেকে এ সকল পণ্য রপ্তানি করবেন তারা আরো ৫ শতাংশ অর্থাৎ মোট ২০ শতাংশ হারে নগদ প্রনোদনা পাচ্ছেন। 
মন্ত্রী বলেন, রপ্তানির ক্ষেত্রে প্রতি বছর একটি পণ্যকে বিশেষ গুরুত্ব দেয়া হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চামড়া ও চামড়াজাত পণ্যকে বর্ষ পণ্য বা প্রোডাক্ট অফ দ্যা ইয়ার-২০১৭ ঘোষণা করেছেন। সরকার সে মোতাবেক এখাতের ব্যবসায়ীসহ সংশ্লষ্টদের প্রয়োজনীয় সহায়তা দিয়ে যাচ্ছে। ওয়েস্টিনে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় প্রোডাক্ট অফ দ্যা ইয়ার-২০১৭ উপলক্ষে আয়োজিত সাংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।
বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ মধ্য আয়ের দেশে উন্নীত হবে। এ সময় দেশের রপ্তানি দাঁড়াবে ৬০ বিলিয়ন ডলার। বর্তমানে দেশের রপ্তানির প্রায় ৮১ ভাগ আসে তৈরী পোশাক খাত থেকে। একটি পণ্যের ওপর নির্ভরশীল না থেকে রপ্তানি পণ্য সংখ্যা বৃদ্ধি এবং বাজার সম্প্রসারণের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।  

তিনি আরো বলেন, নতুন পণ্য রপ্তানিতে নগদ আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হচ্ছে। দেশের রপ্তানি খাতকে আরো শক্তিশালী করতে দেশে ২৭০টি সবুজ কারখানা গড়ে তোলা হচ্ছে। ইতোমধ্যে যুক্তরাষ্ট্র বিশে^র ২৫টি কারখানাকে সবুজ কারখানা হিসেবে ঘোষণা করেছে। এর শীর্ষ ১০টির মধ্যে বাংলাদেশের ৭টি কারখানা রয়েছে। 
পোশাক কারখানায় শ্রমিক ইউনিয়ন করা প্রসঙ্গে তোফায়েল আহমেদ বলেন, বাংলাদেশে শ্রমিক অধিকারের বিষয়ে কোন কোন দেশ প্রশ্ন তুলছে, কিন্তু চীন ও ভিয়েতনামে তারা এ নিয়ে কোন প্রশ্ন করছে না। বাংলাদেশ সকল প্রতিবন্ধকতা মোকাবেলা করে সফল রফতানিকারক দেশ হবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

এর আগে আজ সকালে বাণিজ্যমন্ত্রী ঢাকায় হোটেল লা মেরিডিয়ানে বিজিএমইএ ইউনিভার্সিটি অব ফ্যাশন এন্ড টেকনোজি এবং নেদারল্যান্ডস্ ইনিসিয়েটিভ ফর ক্যাপাসিটি ডেভেলপমেন্ট ইন হায়ার এডুকেশন আয়োজিত ‘এনগেজমেন্ট অব স্টেকহোল্ডার্স ফর রিসপনসিবলিটি এন্ড সাসটেইনেবল ভেল্যু চেইন ইন বাংলাদেশ গার্মেন্ট সেক্টর’ শীর্ষক মেঘা ইভেন্টের উদ্বোধন করেন।

Post a Comment

বাংলাদেশ

[National][fbig1]

ঢাকা উত্তর

[Dhaka North][slider2]

ঢাকা দক্ষিন

[Dhaka South][slider2]

আন্তর্জাতিক

[International_News][gallery2]

ঢাকা উপজেলা

[Dhaka Upazila][fbig2 animated]

রাজনীতি

[political_news][carousel2]

অপরাধ

[Crime][slider2]
Powered by Blogger.