নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীকে নিয়ে সরকারি দল আওয়ামী লীগের অতি আত্মবিশ্বাসের সুযোগ নিতে চায় বিএনপি।



দলটির নেতারা মনে করছেন, সরকারের শীর্ষ মহলের বিশ্বাস জনপ্রিয়তার কারণেই আইভী নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন (নাসিক) নির্বাচনে জয়ী হবেন। তাই তারা অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য আন্তরিক হবে। নগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল  বলেন, এ সুযোগটিই তারা কাজে লাগাবে। এতে বিএনপি প্রার্থী সাখাওয়াত হোসেন খান জয়ী হবেন। নারায়ণগঞ্জ আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা জানান, এবারের নির্বাচনে বিজয়ী হতে আইভীর ব্যক্তি জনপ্রিয়তাই তাদের মূল শক্তি হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে। গত কয়েকদিনে

আইভীর প্রচার ও গণসংযোগেও তার আলামত মিলেছে। বিভিন্ন শ্রেনি-পেশার মানুষের মধ্যে আইভীর জনপ্রিয়তার কথা তুলে ধরে ত্বকী মঞ্চের আহ্বায়ক রফিউর রাবি্ব বলেন, দলের মধ্যে বিরোধিতার কারণে আইভী আরও বেশি পরিশুদ্ধ নেত্রীতে পরিণত হয়েছেন। কারণ মেয়র পদে থাকার সময় গত ৫ বছরে স্থানীয় এমপি শামীম ওসমান স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় ও দুর্নীতি দমন কমিশনে একাধিক অভিযোগ করেন। এসব বিষয়ে বার বার তদন্ত হয়েছে; কিন্তু তদন্তে অভিযোগের প্রমাণ মেলেনি। এমন বক্তব্যের সঙ্গে একমত স্থানীয় বর্ষীয়ান সাংবাদিক ও নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের স্থায়ী সদস্য ওহিদুল হক খান। তিনি বলেন, দক্ষতা ও যোগ্যতায় আইভী অনেক আগেই পরীক্ষিত নেতা হিসেবে জনগণের সামনে তার অবস্থান তুলে ধরেছেন। নতুন কেউ নির্বাচিত হলে তিনি কতটা সৎ হবেন, তা নিয়ে প্রশ্ন থাকতেই পারে। কিন্তু আইভী সততার দিক থেকেও পরীক্ষিত। কারণ দলীয় বিরোধীরা তাকে এতটাই চাপের মধ্যে রেখেছেন যে, দুর্নীতির কোনো অভিযোগের প্রমাণ মিললে তারা তাকে ছাড়ত না।

এদিকে বিএনপি নেতারা মনে করছেন, আইভীকে নিয়ে আওয়ামী লীগের আত্মবিশ্বাস রয়েছে। তাই নিকট অতীতে দেশের কোথাও ভোট সুষ্ঠু না হলেও নারায়ণগঞ্জে হতে পারে। এটিএম কামাল আরও বলেন, আওয়ামী লীগ যেহেতু বিজয়ী হবে বলে মনে করছে, তাই তারা কারচুপির পথে হাঁটবে না। আর ভোট সুষ্ঠু হোক সেই নিশ্চয়তাটাই আমরা চাই। তার মতে, এখন পর্যন্ত পরিস্থিতি যা রয়েছে, তাতে নানা আশঙ্কা থাকলেও সুষ্ঠু ভোটের আয়োজনের ব্যাপারে বিএনপি আশাবাদী। আর ভোট সুষ্ঠু হলে আইভী গত নির্বাচনে যত ব্যবধানে জিতেছে বিএনপি প্রার্থী এবার তত ব্যবধানেই জিতবে।

আনুষ্ঠানিক প্রচারের তৃতীয় দিনেও গতকাল বুধবার নগরীর অলিগলি চষে বেড়িয়েছেন দুই মেয়র প্রার্থী। আওয়ামী লীগের আইভী সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত ৭ নম্বর ওয়ার্ডে এবং সাখাওয়াত ১০ ও ১৩ নম্বর ওয়ার্ডে গণসংযোগ করেন। এদিকে সাখাওয়াত হোসেন খান অভিযোগ করেছেন, মঙ্গলবার মধ্যরাতে সিটি করপোরেশনের পরিচ্ছন্নতা কর্মীরা তার পোস্টার নামিয়ে আইভীর পোস্টার লাগিয়েছেন। এর ভিডিওচিত্র তাদের কাছে সংরক্ষিত। এ বিষয়ে রিটার্নিং অফিসারের কাছে মৌখিকভাবে অভিযোগ করা হয়েছে। রিটার্নিং অফিসার লিখিত অভিযোগের পরামর্শ দিয়েছেন।

বিভক্তি সৃষ্টি না করতে গণমাধ্যমকে আইভীর অনুরোধ : বিভিন্ন গণমাধ্যমে নির্বাচনী সংবাদ প্রকাশের দিকে দৃষ্টি আকর্ষণ করে সেলিনা হায়াৎ আইভী বিভক্তি সৃষ্টি না করার জন্য আহ্বান জানিয়েছেন। নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের এমপি একেএম শামীম ওসমানের অনুগত মহানগর আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা গণসংযোগে অংশগ্রহণ না করা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, 'দলের নেতাকর্মীরা আমার পাশে নেই এমন সংবাদ প্রকাশ করে বিভক্তি সৃষ্টি করবেন না। সবাই আমার পাশে আছে। যারা আসতে পারছেন না তাদের নির্বাচনী আচরণবিধির বাধা আছে। আমি নির্বাচনের আচরণবিধি লঙ্ঘন করতে চাই না।' তিনি আরও বলেন, 'নৌকা প্রতীক দেওয়ার পর থেকে আওয়ামী লীগের সব নেতাকর্মী আমার পাশে আছে। আর প্রতীক বরাদ্দের পর তারা স্বতঃস্ফূর্তভাবে কাজ করছে।' আইভী ভুল নৌকায় পা দিয়েছেন সাখাওয়াত হোসেনের এমন মন্তব্যের জবাবে আইভী বলেন, 'ভুল নৌকা না শুদ্ধ নৌকা তা ২২ ডিসেম্বর ভোটে প্রমাণিত হবে। এ নৌকা শুধু শেখ হাসিনার না, জনগণের প্রতীক, উন্নয়নের প্রতীক, বঙ্গবন্ধুর নৌকা।' তিনি আরও বলেন, 'যে নৌকার মাধ্যমে দেশে একের পর এক উন্নয়ন হচ্ছে, দেশের মানুষের শান্তি আসে, ভবিষ্যতের উন্নয়নের স্বপ্ন দেখে; সেই নৌকা কি কোনো ভুল হতে পারে। জনগণের নৌকা কখনও ভুল হবে না।' গণসংযোগকালে তিনি পুনরায় নির্বাচিত হলে এলাকার জলাবদ্ধতা নিরসন এবং যেসব কাজ অসম্পূর্ণ রয়েছে, তা শেষ করার অঙ্গীকার করেন।

আইভীর পক্ষে কেন্দ্রীয় নেতারা নারায়ণগঞ্জে : আইভীর পক্ষে কাজ করতে কেন্দ্রীয় নেতারা নারায়াণগঞ্জ আসেন। গতকাল বিকেলে নগরীর ২ নম্বর রেলগেট এলাকায় অবস্থিত জেলা আওয়ামী লীগ অফিসে দলের জেলা ও মহানগর কমিটি নিয়ে বৈঠক করেন দলের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কাজী জাফরউল্লাহ। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন হাবিবুর রহমান সিরাজ, সুজিত রায় নন্দী, ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান নওফেল, এনামুল হক শামীম, কাউসার আহাম্মেদ পলাশ, আবদুল হাই, শহীদ বাদল, অ্যাডভোকেট আনিসুর রহমান দীপু, আনোয়ার হোসেন, অ্যাডভোকেট খোকন সাহা ও জিএম আরাফাত।

বিভিন্ন ভোটকেন্দ্র পরিদর্শনে নির্বাচন কমিশনার জাবেদ আলী : নির্বাচন কমিশনার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) মো. জাবেদ আলী বলেছেন, 'শুধু ভোটকেন্দ্র নয় কেন্দ্রের বাইরেও পর্যাপ্ত নিরাপত্তা থাকবে। ভোটাররা যাতে নির্বিঘ্নে ভোটকেন্দ্রে আসতে পারে, সে জন্য বাইরেও পর্যাপ্তসংখ্যক র‌্যাব, বিজিবি, পুলিশ, আনসার স্টাইকিং ফোর্স থাকবে। সব প্রার্থীর জন্য লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড থাকবে।' গতকাল বেলা ১১টা থেকে নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন ভোটকেন্দ্র পরিদর্শন করে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন। এ সময় তিনি প্রার্থীদের নির্বাচনের আচরণবিধি মেনে চলতে অনুরোধ করেন।







Post a Comment

বাংলাদেশ

[National][fbig1]

ঢাকা উত্তর

[Dhaka North][slider2]

ঢাকা দক্ষিন

[Dhaka South][slider2]

আন্তর্জাতিক

[International_News][gallery2]

ঢাকা উপজেলা

[Dhaka Upazila][fbig2 animated]

রাজনীতি

[political_news][carousel2]

অপরাধ

[Crime][slider2]
Powered by Blogger.