বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেছেন, ‘পৌরসভা, উপজেলা, ইউনিয়ন পরিষদ, সিটি নির্বাচন কীভাবে হয়েছে সে বিষয়ে দেশের সকলের অবগত। সেই পক্রিয়ায় নির্বাচিতদের দ্বারা জেলা প্রশাসক নির্বাচিত করা হচ্ছে। 


নির্বাচনের নামে প্রহসন করে আবার ক্ষমতা দখলের চেষ্টা চলছে - নজরুল ইসলাম খান

এমনো দেখা যেতে পারে এই জেলা প্রশাসকরা জাতীয় পর্যায়ে প্রতিনিধি নির্বাচন করবেন।’ রাজধানীর ফটো জার্নালিষ্ট এসোসিয়েশন মিলনায়তনে বৃহস্পতিবার দুপুরে এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। বাংলাদেশ ন্যাপ মজলুম জননেতা আবদুল হামিদ খান ভাসানী ৪০তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে শ্রদ্ধা নিবেদন ও আলোচনা সভার আয়োজন করে।

অভিযোগ করে নজরুল ইসলাম বলেন, ‘নানান কৌশলে নির্বাচনের নামে প্রহসন করে আবার ক্ষমতা দখলের চেষ্টা চলছে। তাই বিএনপি স্পষ্ট করে বলতে চায়, জনগণ এই সব কথা কৌশল মানে না। জনগণ চায় তাদের প্রত্যক্ষ ভোটে জনপ্রতিনিধিরা নির্বাচিত হবে। তারাই রাষ্ট্র পরিচালনা করবে।’

স্থায়ী কমিটির এই সদস্য বলেন, ‘সম্প্রতি নাসিরনগর ও গোবিন্দগঞ্জে হিন্দু সম্প্রদায় ও সাওতালদের ওপর হামলাকে কেন্দ্র করে সবাই বলছে, দলীয় কোন্দল ও একজন মন্ত্রীর প্রত্যক্ষ হস্তক্ষেপ রয়েছে। কিন্তু জনগণকে বিভ্রান্ত করার জন্য ও ভিন্নখাতে প্রভাবিত করার জন্য এর পিছনে নানান ষড়যন্ত্র আবিস্কার করা হচ্ছে। নাসিরনগরে একজন বিএনপি নেতাকে আসামী করে বিপুল প্রচার দিয়ে বুঝানোর চেষ্টা চলছে যে এ ঘটনার সঙ্গে বিএনপি জড়িত আছে।’

সেভাবেই হয়তো গোবিন্দগঞ্জে কোনো সাওতালকে বিএনপি বানিয়ে দেওয়া হবে। একটি কথা মনে রাখতে হবে, এ ধরনের ঘটনা অমার্জনীয় অপরাধ এর সুষ্ঠু বিচার হওয়া দরকার বলেন নজরুল ইসলাম।

তিনি বলেন, ‘তাই এটা নিয়ে রাজনীতিকরণ কিংবা বিরোধী দলকে ক্ষতিগ্রস্ত করার জন্য এটা ভিন্নভাতে প্রভাবিত করার মাধ্যমে প্রকৃত অপরাধীকে আড়াল করার যে চেষ্টা শুভ হবে না। এটা জনগণের বিপক্ষে যাবে। রাষ্ট্রের বিপক্ষে যাবে।’

দেশের জনগণ আজ বিপদাপন্ন উল্লেখ করে নজরুল ইসলাম আরো বলেন, ‘একটি কার্যকর গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া ছাড়া দেশে যে দুর্নীতি, খুন, গুম, অপহরণ, নারী নির্যাতন চলছে তা থেকে মুক্তি নাই। তাই বিএনপি চেয়ারপারসন আগামীকাল শুক্রবার নির্বাচনের ব্যাপারে কিছু বক্তব্য উপস্থাপন করবেন। কারণ বিএনপি জনগণের পাশে আছে। মজলুম জনগণের পক্ষে কাজ করছে।’

মজলুম জননেতা আবদুল হামিদ খান ভাসানীকে জাতির আলোকবর্তিকা আখ্যা দিয়ে তিনি বলেন, ‘আজ না হউক কাল ভাসানীর মৃত্যুদিবস রাষ্ট্রীয়ভাবে পালিত হবে। কারণ দাবি আদায়ে অনড় থেকে তিনি আজীবন লড়াই করেছেন, একটি বারের জন্যও তিনি ক্ষমতার মোহ চাননি। তবে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের প্রতি আওয়ামী লীগের ক্রোধ আছে তা বুঝি কিন্তু ভাসানীর প্রতি তাদের কেন এত অনীহা তা বুঝতে না পেরে বিস্ময় লাগে।’

বাংলাদেশ ন্যাপ সভাপতি জেবেল রহমান গানি, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান সৈয়দ মুহাম্মদ ইব্রাহিম, ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টির চেয়ারম্যান খন্দকার গোলাম মোর্ত্তুজা, বাংলাদেশ জাতীয় দলের সভাপতি এ্যাডভোকেট এহসানুল হুদাসহ দলীয় নেতাকর্মীরা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

Post a Comment

বাংলাদেশ

[National][fbig1]

ঢাকা উত্তর

[Dhaka North][slider2]

ঢাকা দক্ষিন

[Dhaka South][slider2]

আন্তর্জাতিক

[International_News][gallery2]

ঢাকা উপজেলা

[Dhaka Upazila][fbig2 animated]

রাজনীতি

[political_news][carousel2]

অপরাধ

[Crime][slider2]
Powered by Blogger.