'নয়ন তোমারে পায় না দেখিতে, রয়েছ নয়নে নয়নে/হৃদয় তোমারে পায় না জানিতে, হৃদয়ে রয়েছ গোপনে'- হুমায়ূন আহমেদের খুব প্রিয় এই রবীন্দ্রসঙ্গীতই যেন অনুরণিত হলো তার লাখো ভক্তের হৃদয়ে গতকাল রোববার বাংলা সাহিত্যের এই বরপুত্রের ৬৮তম জন্মদিনে।





 রাজধানীর সুফিয়া কামাল জাতীয় গণগ্রন্থাগারের খোলা প্রাঙ্গণে গতকাল উদ্বোধন হয় হুমায়ূন আহমেদ একক বইমেলার। অন্যদিকে চ্যানেল আই প্রাঙ্গণে ছিল হিমুমেলা।


সুফিয়া কামাল জাতীয় গণগ্রন্থাগারের উন্মুক্ত প্রাঙ্গণে ১৭টি প্রকাশনী প্রতিষ্ঠানের উদ্যোগে হুমায়ূন আহমেদের একক বইমেলার উদ্বোধন হয় হেমন্তের পড়ন্ত বিকেলে। একগুচ্ছ বর্ণিল বেলুন আকাশে উড়িয়ে সাত দিনের এ বইমেলার উদ্বোধন করেন হুমায়ূনপত্নী মেহের আফরোজ শাওন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ইমেরিটাস অধ্যাপক আনিসুজ্জামান। সেখানে ঘোষণা দেওয়া হয়, দ্রুততম সময়ের মধ্যেই জননন্দিত এ কথাশিল্পীর পূর্ণাঙ্গ জীবনী ছাপার অক্ষরে প্রকাশিত হবে। তার এই জীবনী লিখবেন হুমায়ূন আহমেদের নানাজিখ্যাত প্রবীণ সাংবাদিক সালেহ চৌধুরী। হুমায়ূন আহমেদের সাহিত্যের প্রথম জীবন থেকে জীবনের অন্তিম দিন পর্যন্ত সুসম্পর্ক ছিল সালেহ চৌধুরীর। তিনি 'হুমায়ূন রচনাবলি' (১০ খণ্ড) সম্পাদনা করেছেন।


অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বরেণ্য কথাশিল্পী সেলিনা হোসেন এবং হুমায়ূন-অনুজ রম্যলেখক ও কার্টুনিস্ট আহসান হাবীব। এ সময় লেখক-বন্ধু-সাংবাদিক সালেহ চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন। প্রকাশকদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন প্রতীক ও অবসর প্রকাশনীর স্বত্বাধিকারী আলমগীর রহমান, অন্যপ্রকাশের মাজহারুল ইসলাম, অনুপম প্রকাশনীর মিলন নাথ, কাকলী প্রকাশনীর প্রধান নির্বাহী এ কে এম নাসির আহম্মদ সেলিম, অন্বেষা প্রকাশনের শাহাদাৎ হোসেন, অন্যপ্রকাশের অন্যতম পরিচালক সিরাজুল কবীর চৌধুরীসহ আরও অনেকে। মেলা উদ্বোধনের আগে অন্যপ্রকাশ থেকে প্রকাশিত সালেহ চৌধুরী সম্পাদিত 'হুমায়ূন রচনাবলি'র (নবম ও দশম খণ্ড) মোড়ক উন্মোচন করেন অতিথিরা।

এ ছাড়া কাকলী প্রকাশনী থেকে প্রকাশিত 'হুমায়ূন আহমেদের কথামালা' এবং মেহের আফরোজ শাওন রচিত 'হুমায়ূন সংগীত :নদীর নামটি ময়ূরাক্ষী' গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন করা হয়।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে আনিসুজ্জামান বলেন, 'হুমায়ূন আহমেদের মতো সৃষ্টিশীল মানুষের জন্মদিন পালনের জন্য এ বইমেলা আয়োজনের চেয়ে ভালো আর কোনো উপায় নেই।

সেলিনা হোসেন বলেন, 'হুমায়ূন আহমেদ বহুমাত্রিক সৃষ্টিশীল মানুষ। শুধু সাহিত্য নয়, নানা দিকে তরুণদের স্বাধীনতা দিয়ে তাদের জন্য তিনি একটি স্বপ্নময় জগৎ তৈরি করে গেছেন।'

আহসান হাবীব বলেন, 'হুমায়ূন আহমেদের প্রকাশিত বইগুলো আরও একবার নির্ভুলভাবে প্রকাশের উদ্যোগ নেওয়া উচিত।'

মেহের আফরোজ শাওন বলেন, 'হুমায়ূন আহমেদের পূর্ণাঙ্গ জীবনী প্রকাশের জন্য পরিবারের পক্ষ থেকে সব ধরনের সহযোগিতা দেওয়া হবে। তার পূর্ণাঙ্গ জীবনী প্রকাশ হলে তাকে জানার পরিধি আরও বাড়বে। তরুণ প্রজন্ম প্রেরণা পাবে গ্রন্থটি থেকে।'

সাত দিনের এ বইমেলা প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত খোলা থাকবে। প্রতিদিন সন্ধ্যায় থাকছে কবিতা পাঠের আসরে হুমায়ূন আহমেদকে নিবেদিত কবিতা পাঠ, অনুগল্প পাঠ ও পথনাটক মঞ্চায়ন।

Post a Comment

বাংলাদেশ

[National][fbig1]

ঢাকা উত্তর

[Dhaka North][slider2]

ঢাকা দক্ষিন

[Dhaka South][slider2]

আন্তর্জাতিক

[International_News][gallery2]

ঢাকা উপজেলা

[Dhaka Upazila][fbig2 animated]

রাজনীতি

[political_news][carousel2]

অপরাধ

[Crime][slider2]
Powered by Blogger.