রাজধানীর ধানমণ্ডি ও নয়াপল্টনে উচ্ছেদ অভিযান চালিয়েছে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক)। এ সময় বেশ কয়েকটি ভবনের অবৈধ অংশ বুলডোজার দিয়ে গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়। মেডিনোভা মেডিকেল সার্ভিসের কাছ থেকে দুই লাখ টাকা জরিমানাও আদায় করা হয়।




অন্যদিকে, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) ভ্রাম্যমাণ আদালত গুলশানে মানহীন পণ্য বিক্রির দায়ে ছয় দোকান মালিকের কাছ থেকে এক লাখ ৮০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেন।

সোমবার রাজউকের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নাসির উদ্দিনের নেতৃত্বে ধানমণ্ডি এলাকায় অভিযান শুরু হয়। সাত মসজিদ রোডে 'মেডিনোভা মেডিকেল সার্ভিস' ভবনের বেজমেন্টের গার্ডরুম ও ছাদের ওপর ৩-৪টি কক্ষ নিরাপত্তারক্ষীদের থাকার জায়গা হিসেবে ব্যবহারের দায়ে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে দুই লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। এ সময় ১৫ দিনের মধ্যে কর্তৃপক্ষকে অবৈধ স্থাপনা সরিয়ে নিতে বলেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

এছাড়া ৭ নম্বর রোডে অবৈধভাবে বাণিজ্যিক হিসেবে পরিচালিত 'রেশমী কালেকশন', 'হিজাব শপ', একটি বুটিকের দোকানসহ তিনটি দোকান সিলগালা করে বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়। তাছাড়া ভবনের নকশাবহির্ভূত দ্বিতীয় তলার কিছু অংশ ভেঙে গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়। এরপর সাত মসজিদ রোডে ছয়তলার নকশা নিয়ে সাততলা নির্মাণ করে সেখানে অবৈধভাবে চালু করা 'স্কাই শেফ' নামক রেস্তোরাটি ভেঙে গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়।

অন্যদিকে, রাজউকের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রট খন্দকার অলিউর রহমানের নেতৃত্বে নয়াপল্টনের হোল্ডিং নং ৪৮-এর অনুমোদনহীন অংশ গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়।

এদিকে, ডিএনসিসির নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাজিদ আনোয়ার গুলশান ১-এর বিপণিবিতান স্বপ্নতে পণ্যমূল্য প্রদর্শন ছাড়াই পণ্য বিক্রি ও পচা মাছ বিক্রির দায়ে এক লাখ টাকা জরিমানা করেন। পাশেই 'ক্যাপ্রিকর্ন' নামক আরেকটি প্রতিষ্ঠানের ফ্রিজে একসঙ্গে বিভিন্ন খাদ্যদ্রব্য রাখায় ৩০ হাজার টাকা এবং বেশি দামে পণ্য বিক্রি করায় 'সিরাজ রেস্টুরেন্টকে' ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

এছাড়া গুলশান ১ নম্বর ডিএনসিসি কাঁচাবাজারে তিন দোকানির বিরুদ্ধে মামলা ও আইন লঙ্ঘন করায় কয়েকটি দোকানের ট্রেড লাইসেন্স বাতিল করা হয়।

Post a Comment

বাংলাদেশ

[National][fbig1]

ঢাকা উত্তর

[Dhaka North][slider2]

ঢাকা দক্ষিন

[Dhaka South][slider2]

আন্তর্জাতিক

[International_News][gallery2]

ঢাকা উপজেলা

[Dhaka Upazila][fbig2 animated]

রাজনীতি

[political_news][carousel2]

অপরাধ

[Crime][slider2]
Powered by Blogger.