কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার সদ্যবিলুপ্ত দাসিয়ারছড়া ছিটমহলের বালাটারী এলাকার বাসিন্দা ৮৭ বছর বয়সী মোহাম্মদ আলী সোমবার জীবনে প্রথমবারের মতো ভোট দিয়েছেন। 


তখন সকাল পৌনে ৮টা। প্রতিবেশী আবদুর রহমানকে সঙ্গে নিয়ে রিকশায় চড়ে দাসিয়ারছড়ার শেখ ফজিলাতুন্নেছা মাদ্রাসা ভোটকেন্দ্রে যান তিনি। ভোটকেন্দ্রে তখনও অন্যান্য ভোটারের উপস্থিতি কম। রিকশা থেকে নামার পর কর্তব্যরত আনসার মোহাম্মদ আলীকে ধরে ভোটকক্ষে নিয়ে যান। ভোট দিয়ে যখন বেরিয়ে এলেন, তখন চোখে-মুখে খুশির ঝিলিক। জড়ানো কণ্ঠে বললেন, 'জীবনে প্রত্থম ভোট দিলোং বাহে। কী শান্তি।'




লাঠি ছাড়া হাঁটতে পারেন না মোহাম্মদ আলী। দাঁতগুলো পড়ে যাওয়ায় ভালোভাবে কথাও বলতে পারেন না। তার পরও জীবদ্দশায় ভোটাধিকার প্রয়োগের প্রথম সুযোগটুকু হাতছাড়া করেননি তিনি।

এক-দুই বছর নয়, যুগের পর যুগ কেটেছে এসব ছিটমহলের বসবাসকারী মানুষের। জীবনের শুরুতে দেখেছেন ব্রিটিশশাসিত ভারতবর্ষ। ১৯৪৭ সালে দেশ ভাগের সময় জন্মভিটে তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের ভূখণ্ডের ভেতরে হলেও নাগরিক ছিলেন ভারতের। ভূ-রাজনীতির এই অদ্ভুত বিভাজনে কাটিয়েছেন অবরুদ্ধ জীবন। এর পর স্বাধীন বাংলাদেশ। তার পরও কপাল থেকে মুছে যায়নি ছিটমহলের পরিচয়। অবশেষে দীর্ঘ ৬৮ বছর পর ছিটমহল বিনিময় হওয়ায় মিলেছে মুক্তি। পেয়েছেন বাংলাদেশের নাগরিকত্ব। হয়েছেন ভোটার।

এ অভিব্যক্তি শুধু একা মোহাম্মদ আলীর নয়, লাঠিতে ভর দিয়ে অন্যের সাহায্য নিয়ে কেন্দ্রে এসে ভোট দিয়েছেন কালীরহাটের ৭৫ বছর বয়সী সহিজন বেওয়া, নামাটারীর মহসীন আলী, সমন্বয়পাড়ার মোজাফ্ফর হোসেন, বোর্ডের হাটের আনিসুর রহামান, বালাটারীর হালিমা বেগম ও মাহফুজা খাতুন এবং হাজীটারীর ফজলুল হক।

১৮ বছর পার করেছেন হাজীটারী এলাকার নিজাম উদ্দিনের মেয়ে শাবানা খাতুন। তাকে যুগ যুগ ধরে অপেক্ষা করতে হয়নি। বয়স হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ভোটার হয়েছেন এবং ভোটও দিয়েছেন। খুশিতে লাফাচ্ছিলেন তিনি।

শেখ ফজিলাতুনেচ্ছা মাদ্রাসা কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার মো. রায়হান উদ্দিন জানালেন, একমাত্র তার কেন্দ্রটি ছিটমহলের ভেতরে। ভোটার সংখ্যা ৭৮৬ জন।

এ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সোমবার গোটা দাসিয়ারছড়া ছিল উৎসবমুখর। আর শেখ ফজিলাতুন্নেছা মাদ্রাসা কেন্দ্রটি ঘিরে বসেছিল মেলা। সব বয়সী মানুষের মিলনমেলায় পরিণত হয়েছিল পুরো এলাকা।

বিনিময়ের পর ১২টি সদ্যবিলুপ্ত ছিটমহলকে কুড়িগ্রাম জেলার সদর, ফুলবাড়ী ও ভুরুঙ্গামারী উপজেলায় অন্তর্ভুক্ত করা হয়। এর মধ্যে একটি ছিটমহলে কোনো জনবসতি নেই। অবশিষ্ট ১১টি ছিটমহলকে ফুলবাড়ী উপজেলার ফুলবাড়ী সদর, কাশিপুর, ভাঙ্গামোড় ইউনিয়নের ছয়টি ওয়ার্ডে এবং ভুরুঙ্গামারী উপজেলার সদর, পাথরডুবি ও শিলখুঁড়ি ইউনিয়নের ছয়টি ওয়ার্ডে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। মোট ভোটার সংখ্যা তিন হাজার ৪৫১ জন। এই ছয়টি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ৩১ প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।


Post a Comment

বাংলাদেশ

[National][fbig1]

ঢাকা উত্তর

[Dhaka North][slider2]

ঢাকা দক্ষিন

[Dhaka South][slider2]

আন্তর্জাতিক

[International_News][gallery2]

ঢাকা উপজেলা

[Dhaka Upazila][fbig2 animated]

রাজনীতি

[political_news][carousel2]

অপরাধ

[Crime][slider2]
Powered by Blogger.