রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শরিফুল ইসলাম সাদ্দামের বিরুদ্ধে এক শিক্ষার্থীকে মারধর করে ৮০ হাজার টাকা চাঁদা আদায়ের অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল সোমবার এ ঘটনায় ওই শিক্ষার্থী মতিহার থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন। 

 চাঁদা না পেলে শিবির বলে পুলিশে দেয়ার হুমকি দেয় ছাত্রলীগ নেতা


ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীর নাম আল আমীন। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী। অভিযোগে জানা যায়, গত ২৮ মে দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের নেতা সাদ্দাম শের-ই-বাংলা ফজলুল হক হলের নিজ কক্ষে আল আমীনকে ডেকে পাঠান। এরপর জালিয়াতি করে ভর্তির অভিযোগ তুলে তার কাছ থেকে ৮০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে। এই চাঁদা না দিলে তাকে শিবিরকর্মী বলে পুলিশে ধরিয়ে দেয়ার হুমকি দেয় ছাত্রলীগ নেতা।

এ সময় প্রাণের ভয় দেখিয়ে তাৎক্ষণিক বিকাশের দুইটি নম্বরের মাধ্যমে ৪০ হাজার টাকা আদায় করা হয়। এরপর ৩০ মে আরো ৪০ হাজার টাকা আদায় করেন ছাত্রলীগ নেতা সাদ্দাম। এরপর সর্বশেষ সোমবার দুপুরে সাদ্দাম তার ০১৭১১-৯২৪৯৬২ এবং ০১৭৪৭৩২১০৫৬ এই নম্বর থেকে ফোন করে আবারো আল আমীনকে তার রুমে ডাকে। ছাত্রলীগ নেতা সাদ্দামের রুমে না গেলে ভুক্তভোগীর হাত-পা ভেঙে ফেলাসহ নানা ভয়-ভীতি দেখায় বলেও অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে ভুক্তভোগী আল আমীন বলেন, ‘গত ২৮ মে দুপুরে আমার এক বন্ধুর মাধ্যমে সাদ্দাম আমাকে তার রুমে ডেকে নিয়ে যায়। এরপর রাত ১০টা পর্যন্ত আমাকে রড দিয়ে মারধর করে। আমার বাবা-মাকে ফোন দিতে বাধ্য করে ৪০ হাজার টাকা নিয়ে আমাকে ছেড়ে দেয়। এরপর আবারো ৪০ হাজার টাকা হুমকি-ধামকি দিয়ে আদায় করে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ছাত্রলীগ নেতা সাদ্দাম বলেন, ‘আমি এ ব্যাপারে কিছু জানি না। ওই ছেলেকে আমি চিনিও না।’ এ ব্যাপারে নগরীর মতিহার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হুমায়ূন কবির বলেন, ‘আমি থানার বাইরে আছি। বিষয়টি জানি না।’ ওই থানার ডিউটি অফিসার উপ-পরিদর্শক (এসআই) বেলাল বলেন, ‘অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

Post a Comment

বাংলাদেশ

[National][fbig1]

ঢাকা উত্তর

[Dhaka North][slider2]

ঢাকা দক্ষিন

[Dhaka South][slider2]

আন্তর্জাতিক

[International_News][gallery2]

ঢাকা উপজেলা

[Dhaka Upazila][fbig2 animated]

রাজনীতি

[political_news][carousel2]

অপরাধ

[Crime][slider2]
Powered by Blogger.