ফ্লাইওভার নির্মাণ ও সড়ক কেটে বিভিন্ন সেবা সংস্থার লাইন বসানোর জন্য কাটাছেঁড়ার কারণে রাজধানীর মালিবাগ-রামপুরা-প্রগতি সরণি সড়ক ক্ষতবিক্ষত। ভাঙাচোরা এই সড়কে যানজট তীব্র রূপ নিয়েছে। যানবাহন চলাচলের অংশ কমে গেছে। পাশাপাশি পবিত্র রমজান উপলক্ষে বেড়েছে গাড়ির চাপ। ফলে গুরুত্বপূর্ণ সড়কটি নিজেই অচল হয়ে গেছে। এতে করে এই পথে চলতে গিয়ে যাত্রীদের অবর্ণনীয় ভোগান্তির শিকার হতে হচ্ছে। যানজটে স্থবির বাসের যাত্রীদের রোদ-বৃষ্টি মাথায় নিয়ে হেঁটে গন্তব্যে যাত্রা নিয়মিত চিত্র হয়ে দাঁড়িয়েছে 

অচল সড়কে ভয়াবহ জট, বাস থেকে নেমে হেঁটে গন্তব্যে যাত্রা

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, মালিবাগ মোড় থেকে চৌধুরীপাড়া পর্যন্ত মগবাজার-মৌচাক ফ্লাইওভারের নির্মাণকাজ চলছে। এই অংশে সড়কের মধ্যস্থলে সড়ক কেটে বেশির ভাগটায় পাইলিংয়ের কাজ চলছে। কোথাও রাখা হয়েছে নির্মাণসামগ্রী। ফলে চলাচলের সড়ক অর্ধেক হয়ে আছে আগে থেকেই। গত কয়েক দিনের বৃষ্টিপাতে জলাবদ্ধতায় স্থানে স্থানে ভেঙে গেছে পুরনো রাস্তা। জমে থাকছে পানি। হাতিরঝিল প্রকল্পের সংযোগ সড়ক থেকে বাড়তি গাড়ি যোগ হওয়ায় রামপুরা-বাড্ডা সড়কে যানবাহনের চাপ সামাল দিতে পারছে না ট্রাফিক পুলিশও। সেই সঙ্গে মধ্য বাড্ডা থেকে বারিধারা পর্যন্ত স্থানে স্থানে রাস্তা কমে গেছে আবর্জনার স্তূপে, গাড়ির অবৈধ পার্কিংয়ে। কোথাও রাস্তার অংশ কেটে রাখা হয়েছে। কোথাও জমে থাকছে বৃষ্টির পানি। আবার রাস্তা দখল করে বাস-মিনিবাস রাখা হয়, ঘোরানো হয়। তাতে করে নতুন বাজারের আগে থেকেই সৃষ্টি হচ্ছে দীর্ঘ জট। গুলশান-২ নম্বর থেকে আসা গাড়ির সারি নতুন বাজারে যোগ হওয়ায় এখানে সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত যানজট লেগে থাকছে।

জানা গেছে, শুধু মিরপুর থেকেই নতুন বাজারে কমপক্ষে ২৫০টি গাড়ি চলাচল করছে। পল্লবী থেকে নতুন বাজার রুটে বিহঙ্গ পরিবহনের বাস চলে প্রতিদিন গড়ে ৪৪টি। প্রায় ১৭ কিলোমিটার পথ চলাচলে রমজান শুরুর আগে লাগত দুই ঘণ্টা। এখন তা চার থেকে পাঁচ ঘণ্টায় গিয়ে দাঁড়িয়েছে। বিহঙ্গ পরিবহনের চালক মানিক সাহা কালের কণ্ঠকে বলেন, গুলশান থেকে নতুন বাজারের দূরত্ব প্রায় এক কিলোমিটার। এই পথ পার হতে যানজট না থাকলে পাঁচ মিনিট লাগে। গতকাল লেগেছে এক ঘণ্টা। তুরাগ পরিবহনের যাত্রী আশিক উদ্দিন বললেন, ‘অন্যদিন যাত্রাবাড়ী থেকে ৪০-৪৫ মিনিটে নতুন বাজারে আসা যেত। আজ লেগেছে তিন ঘণ্টা।’  প্রগতি সরণি থেকে শাহজাদপুর পর্যন্ত রাস্তার বাঁ অংশে রাস্তা কেটে রাখা হয়েছে। মোটরসাইকেলে নতুন বাজার যেতেই সোয়া দুই ঘণ্টা লেগেছে আবুল ফজলের। ক্ষোভের সঙ্গেই তিনি বললেন, ‘ভাই, এর চেয়ে খারাপ অবস্থা আর কী হতে পারে!’ 

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, নতুন বাজার থেকে নর্দার বিভিন্ন অংশে সড়ক কেটে রাখা হয়েছে। রাস্তার ওপর রাখা হয়েছে স্তূপ করা মাটি। ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) উদ্যোগে প্রগতি সরণিতে রাস্তা খুঁড়ে ড্রেন নির্মাণের কাজ শুরু হয়েছিল মাস দেড়েক আগে। এই কাজের জন্য রাস্তায় চলাচলের অংশ কমে গেছে। ডিএনসিসির অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী সৈয়দ কুদরত উল্লাহ কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘নতুন বাজার থেকে শাহজাদপুর সুতিভোলা খালে গিয়ে ড্রেনের পানি পড়বে। এখানে বড় ড্রেন নির্মাণের জন্য কাজ শুরু হয়েছে।’ মগবাজার-মৌচাক ফ্লাইওভার প্রকল্পের নির্মাণকাজ চলছে মালিবাগ-মৌচাক অংশে। দুপুরে মালিবাগ মোড়ে গিয়ে দেখা গেছে, মৌচাকমুখী সড়কের মধ্যস্থলের অংশে যান চলাচল বন্ধ। এই অংশে রাস্তার দুই পাশের স্থানে স্থানে সৃষ্টি হয়েছে ছোট-বড় গর্ত। নির্মাণকাজের জন্য তুলে নেওয়া হয়েছে সড়ক বিভাজকসহ মধ্যস্থলের দীর্ঘ অংশ। 

শান্তিনগর থেকে মালিবাগ মোড় হয়ে মৌচাকের দিকে হাঁটতে হাঁটতে দেখা গেল বাস ও মিনিবাস থামতে থামতে চলছে মগবাজারের দিকে। মালিবাগ মোড় থেকে বাসসহ বিভিন্ন যানবাহনের একটি অংশ রামপুরার দিকে যাচ্ছিল। বাসগুলো কখনো কাত হয়ে পড়ছিল, রিকশা আটকে যাচ্ছিল কাদায়। সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এই সড়ক পরিদর্শনে যান গতকাল দুপুরে। তিনি সড়কে যান চলাচল নির্বিঘ্ন রাখার জন্য সাত দিন সময় বেঁধে দিয়েছেন। অন্যথায় দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ারও ঘোষণা দিয়েছেন তিনি। 

Post a Comment

বাংলাদেশ

[National][fbig1]

ঢাকা উত্তর

[Dhaka North][slider2]

ঢাকা দক্ষিন

[Dhaka South][slider2]

আন্তর্জাতিক

[International_News][gallery2]

ঢাকা উপজেলা

[Dhaka Upazila][fbig2 animated]

রাজনীতি

[political_news][carousel2]

অপরাধ

[Crime][slider2]
Powered by Blogger.