উচ্চতা বাড়াতে গিয়ে বিপত্তিতে এক যুবক। লম্বা তো হওয়া হলই না, উলটে গায়ে হাত পায়ে প্রচণ্ড যন্ত্রণা ও মানসিক চাপের শিকার তিনি। দু মাস ধরে প্রায় বিছানায় শয্যাশায়ী ভারতের হায়দরাবাদের বাসিন্দা নিখিল রেড্ডি। অবিলম্বে চিকিৎসা বন্ধের দাবি জানিয়েছেন তিনি। 

লম্বা হতে গিয়ে বেকায়দায় যুবক
চার লাখ টাকা দিলেই বাড়িয়ে দেওয়া হবে উচ্চতা। এমনই বিজ্ঞাপন দেখে লম্বা হওয়ার আকাঙ্খা জেগেছিল হায়দরাবাদের বাসিন্দা নিখিল রেড্ডির। বাইশ বছরের ওই যুবকের উচ্চতা বর্তমানে ৫ ফুট ৭ ইঞ্চি। আরও ৩ ইঞ্চি বাড়ানোর আশা নিয়ে হায়দরাবাদের গ্লোবাল হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন তিনি। কিন্তু, দু মাস ধরে চিকিৎসা চললেও এখনও পর্যন্ত কোনও সুফল দেখতে পাননি তিনি। শেষ পর্যন্ত বাধ্য হয়ে চিকিৎসা থেকে অব্যাহতি চেয়েছেন তিনি। নিখিলের বাবা গোবর্ধন রেড্ডি এই চিকিৎসাকে ধাপ্পাবাজি বলে অভিযোগ করেছেন। অদূর ভবিষ্যতে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ারও হুমকি দিয়েছেন তিনি। তাঁর অভিযোগ, উচ্চতা বাড়ানো নিয়ে মিথ্যে প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল তাঁদের। সেইসঙ্গে এই চিকিৎসার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া সম্পর্কেও কোনও সতর্কবার্তা দেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ গোবর্ধন রেড্ডির। ইতিমধ্যেই এই চিকিৎসায় ৩ লাখ টাকা খরচ করে ফেলেছেন তিনি। যদিও তাঁদের চিকিৎসা পদ্ধতি সম্পূর্ণ বিজ্ঞানসম্মত বলে দাবি করেছেন অভিযুক্ত গ্লোবাল হাসপাতালের চিকিৎসকরা। তাঁদের পালটা দাবি, চিকিৎসায় ভালোই সাড়া মিলছিল।   

Post a Comment

বাংলাদেশ

[National][fbig1]

ঢাকা উত্তর

[Dhaka North][slider2]

ঢাকা দক্ষিন

[Dhaka South][slider2]

আন্তর্জাতিক

[International_News][gallery2]

ঢাকা উপজেলা

[Dhaka Upazila][fbig2 animated]

রাজনীতি

[political_news][carousel2]

অপরাধ

[Crime][slider2]
Powered by Blogger.