ভারতের দিল্লিতে শর্তানুযায়ী গরিবদের বিনা মূল্যে চিকিৎসা না দেওয়ায় শীর্ষ পাঁচ বেসরকারি হাসপাতালকে ৬০০ কোটি রুপি জরিমানা করা হয়েছে। গরিবদের পয়সা ছাড়া চিকিৎসাসেবা দেবে—এই শর্তে হাসপাতালগুলো কম দামে সরকারের কাছ থেকে জমি বরাদ্দ পেয়েছিল।

দিল্লির শীর্ষ ৫ হাসপাতালকে ৬০০ কোটি রুপি জরিমানা

মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালের নেতৃত্বাধীন দিল্লির আম আদমি পার্টির (এএপি) সরকার হাসপাতালগুলোর লাগামহীম মুনাফাকে ‘অনায্য’ বলে অভিহিত করেছে। গতকাল জরিমানার মুখে পড়া পাঁচ হাসপাতাল ছাড়াও আরো ৩৮টি বেসরকারি হাসপাতালকে গরিবদের পয়সা ছাড়া চিকিৎসা দেওয়ার শর্তে নামমাত্র মূল্যে জমি দেওয়া হয়েছে। এএপি সরকার জানিয়েছে, গাফিলতি দেখা গেলে অন্যান্য হাসপাতালের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এএপি সরকারের এক আদেশে বলা হয়, গরিবদের বিনা মূল্যে চিকিৎসার শর্ত দিয়ে ওই পাঁচটি হাসপাতালকে কম দামে জমি বরাদ্দ দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু হাসপাতালগুলো শর্ত পালনে ব্যর্থ হয়েছে। হাসপাতালগুলোর মধ্যে রয়েছে ফর্টিস এসকর্টস হার্ট ইনস্টিটিউট, ম্যাক্স সুপার স্পেশালিটি হসপিটাল, শান্তি মুকন্দ হাসপাতাল, ধর্মশিলা ক্যান্সার হাসপাতাল ও পুষ্পবতী সিংহানিয়া রিসার্চ ইনস্টিটিউট। দিল্লি সরকারের অতিরিক্ত স্বাস্থ্য পরিচালক হেম প্রকাশ বলেন, ‘এই হাসপাতালগুলো শর্ত মানেনি। তাই এগুলোর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।’ জরিমানা করার আগে হাসপাতালগুলোকে কারণ দর্শানোর নোটিশও দেওয়া হয়েছিল বলে জানান তিনি। অন্যান্য হাসপাতালের বিরুদ্ধে একই ধরনের ব্যবস্থা নেওয়ার আশঙ্কার কথাও জানান হেম প্রকাশ। কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, জরিমানা দেওয়ার জন্য হাসপাতালগুলোকে এক মাস সময় দেওয়া হয়েছে। এই সময়ের মধ্যে সরকারি কোষাগারে অর্থ জমা দেওয়া না হলে হাসপাতালগুলোর বিরুদ্ধে আরো কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও সতর্ক করা হয়েছে। উল্লেখ্য, দিল্লির মোট ৪৩টি হাসপাতালকে কম দামে জমি দেওয়ার শর্তে বলা হয়েছিল, হাসপাতালগুলোর ইন-পেশেন্ট বিভাগের মোট সেবা সেগুলোর সক্ষমতার ১০ শতাংশ এবং আউট-পেশেন্ট বিভাগের সেবা সক্ষমতার ২৫ শতাংশ গরিবদের জন্য বিনা মূল্যে দিতে হবে। হাইকোর্টের নিয়োগ দেওয়া নজরজারি কমিটির সদস্য এবং আইনজীবী অশোক আগারওয়াল জানান, ১৯৬০ থেকে ১৯৯০ সালের মাঝামাঝি সময়ে জমিগুলো বরাদ্দ দেওয়া হয়েছিল। গরিবদের বিনা মূল্যে চিকিৎসার শর্ত বাস্তবায়নের জন্য করা একটি জনস্বার্থ মামলায় হাইকোর্টের দেওয়া আদেশের পর থেকে ওই জরিমানার অঙ্ক হিসাব করা হয়েছে। হাইকোর্ট ওই আদেশ দেন ২০০৭ সালের ২২ মার্চ।

Post a Comment

বাংলাদেশ

[National][fbig1]

ঢাকা উত্তর

[Dhaka North][slider2]

ঢাকা দক্ষিন

[Dhaka South][slider2]

আন্তর্জাতিক

[International_News][gallery2]

ঢাকা উপজেলা

[Dhaka Upazila][fbig2 animated]

রাজনীতি

[political_news][carousel2]

অপরাধ

[Crime][slider2]
Powered by Blogger.