শিক্ষককে লাঞ্ছনার ঘটনায় স্কুলটির পরিচালনা কমিটিকে বাতিল করা হয়েছে। সেইসঙ্গে পরিচালনা কমিটি প্রধান শিক্ষক শ্যামল কান্তি ভক্তকে যে সাময়িক বরখাস্তের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল তা বাতিল করে তাকে স্বপদে বহাল করা হয়েছে।




রাজধানীর সেগুনবাগিচায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটউটে বৃহস্পতিবার সকালে শিক্ষক লাঞ্ছনার ঘটনায় মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের (মাউশি) তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশ উপলক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এ ঘোষণা দেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, প্রাথমিক অনুসন্ধানে শিক্ষক শ্যামলকান্তির বিরুদ্ধে ধর্ম নিয়ে কটূক্তির কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি।

মন্ত্রী বলেন, স্কুল পরিচালনা কমিটির বিরুদ্ধে তদন্ত কমিটি রিপোর্ট দিয়েছে- কমিটি দায়িত্ব পালনের যোগ্য নয়। আমরা প্রচলিত আইন অনুসারে স্কুল পরিচালনা কমিটিকে বাতিল ঘোষণা করছি। আমরা জেলা প্রশাসকের নেতৃত্বে একটি কমিটি করে দিচ্ছি, সে কমিটি স্কুল পরিচালনা করবে।

প্রধান শিক্ষক শ্যামল কান্তি ভক্তকে স্বপদে বহাল সম্পর্কে তিনি বলেন, প্রধান শিক্ষককে সাময়িক বরখাস্তের যে আদেশ কমিটি দিয়েছে তা অবৈধ। যেহেতু তাদের কমিটিই বাতিল করা হয়েছে তাই অবধারিতভাবেই প্রধান শিক্ষক শ্যামল কান্তি ভক্ত তার স্বপদে পুনবর্হাল হলেন।

সংবাদ সম্মেলনে সমাজের সচেতন মানুষকে ধন্যবাদ জানান শিক্ষামন্ত্রী। তিনি বলেন, আপনাদের কারণেই এই বিষয়টি আজকে আমাদের সামনে উপস্থাপিত হয়েছে। শিক্ষকরা দেশ গড়ার কারিগর। তাদের অসম্মান দেশের অপমান, দেশের সকল মানুষের অপমান। শিক্ষকদের এই অসম্মান কোনোভাবেই মেনে নেওয়া যায় না।

ঘটনার সঙ্গে যারা জড়িত তাদের বিরুদ্ধে কি ব্যবস্থা নেওয়া হবে সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, আমাদের যতটুকু কাজ তা আমরা করেছি। ঘটনার সঙ্গে যারা জড়িত তাদের বিরুদ্ধে আইন মন্ত্রণালয় ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ব্যবস্থা নেবে। আপনারা দেখেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নিজেও ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলেছেন। এছাড়া হাইকোর্টও শিক্ষক লাঞ্ছনার বিষয়ে কি ব্যবস্থা নেওয়া হবে তা জানতে রুল জারি করেছেন।

গত শুক্রবার ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দেওয়ার গুজব ছড়িয়ে পিয়ার সাত্তার লতিফ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শ্যামল কান্তি ভক্তকে পিটিয়ে জখম করে স্থানীয় জনতা। এক পর্যায়ে স্থানীয় সংসদ সদস্য একেএম সেলিম ওসমান তাকে কান ধরে উঠবস করতে বাধ্য করেন।

ওই শিক্ষকের অভিযোগ, বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সদস্যদের ‘অনৈতিক অবদার’ না রাখায় ষড়যন্ত্রমূলকভাবে স্থানীয় মসজিদের মাইকে ধর্মীয় অবমাননার কথা বলে এলাকাবাসীকে জড়ো করে তার উপর হামলা চালানো হয়েছে।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার শিক্ষক শ্যামল কান্তি ভক্তকে তার পদ থেকে সাময়িক বরখাস্ত করে স্কুলের ম্যানেজিং কমিটি। তার বিরুদ্ধে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দেওয়া সহ চারটি অভিযোগ আনা হয়।

Post a Comment

বাংলাদেশ

[National][fbig1]

ঢাকা উত্তর

[Dhaka North][slider2]

ঢাকা দক্ষিন

[Dhaka South][slider2]

আন্তর্জাতিক

[International_News][gallery2]

ঢাকা উপজেলা

[Dhaka Upazila][fbig2 animated]

রাজনীতি

[political_news][carousel2]

অপরাধ

[Crime][slider2]
Powered by Blogger.