অনেক পরিচিত একটা জনপ্রিয় খাবারের মাঝে সামুসা অন্নতম। ছোট বড়ো সবারই সামুসা দারুন পছন্দের। তবে দোকানে তৈরী সামুসা খেলে অনেকেরই পেটে গ্যাস সহ নানা সমসসায় পরতে হয়। সবচেয়ে ভালো হয় যদি ঘড়েই বানানো হয়। অনেকেই সামুসা তৈরির রেসিপি জানেন। যারা জানেন না এটা তাদের জন্য। তারপরেও একটু দেখে নিতে পারেন। 

 মুচমুচে সামুসা তৈরি করুন এবার ঘরেই

আপনাদের রেসিপি থেকে কোথাও একটু আলাদা হতেই পারে।

সামুসা তৈরির উপকরণ:

- মাংসের কিমা ০.৫০ কেজি
- আদা ২ চা চামচ (বাটা)
- রসুন ২ চা চামচ (বাটা)
- মরিচ ২ চা চামচ (বাটা)
- গোলমরিচ ০.৫০ চা চামচ (বাটা)
- এলাচ ২ টি (বাটা)
- দারচিনি ০.২৫ চা চামচ
- তেজপাতা ১ টি
- পেঁয়াজ ৬ টি (কুচি)
- ধনে বা পুদিনাপাতা ২ টেবিল চামচ
- কাঁচামরিচ ২ টি (কুচি)
- তেল ০.২৫ কাপ
- ময়দা ০.৫০ কেজি
- লবণ ১.৫০ চা চামচ
- পানি ০.৭৫ কাপ
- তেল ভাজার জন্য

তৈরির প্রক্রিয়া:
মুচমুচে সামুসা তৈরি করুন এবার ঘরেই 
 মাংসে বাটা মসলা, তেজপাতা, ১ চা চামচ লবণ, ৩ টেবিল চামচ তেল এবং আধা কাপ পানি দিয়ে ঢেকে মৃদু আঁচে রান্না করতে হবে। পানি শুকালে পেঁয়াজ, ধনেপাতা, কাঁচামরিচ ও ১ চা চামচ ময়দা দিয়ে ভেজে নিতে হবে। প্রায় ৩.৫ কাপ ময়দায় লবণ ও পানি দিয়ে মথে নাও। ময়দা ১৬ ভাগ কর এবং সেগুলো থেকে ছোট ছোট রুটি বেল। একটি রুটির উপরে তেল মাখাও এবং তার উপরে আর একটি রুটি রাখ। এবার বেলে বড় কর। এভাবে অন্যগুলোও কর। বড় রুটি আলাদা করা হলে ছুরি দিয়ে ২০ সে.মি. (প্রায় ৮ ইঞ্চি) লম্বা ও ৮ সে.মি. (প্রায় ৩ ইঞ্চি) চওড়া করে কাট। অল্প ময়দা পানিতে ঘন লেই- এর মত করে গুলে নাও। এক টুকরা রুটি ত্রিভুজের আকারে তিনবার ভাজ করে ভিতরে কিমার পুর দাও। রুটির বাকি অংশে গুলানো ময়দা মাখাও। এই বাড়তি অংশটুকু দিয়ে সামুসার খোলামুখ বন্ধ কর। বাড়তি অংশ সামুসার সাথে চেপে আটকাবে, নয়ত ভাজার সময় খুলে যাবে। ডুবো তেলে ভেজে তোল। 

সবশেষে সস বা চাটনীর সাঙ্গে পরিবেশন কর মুচমুচে সামুসা।

Post a Comment

বাংলাদেশ

[National][fbig1]

ঢাকা উত্তর

[Dhaka North][slider2]

ঢাকা দক্ষিন

[Dhaka South][slider2]

আন্তর্জাতিক

[International_News][gallery2]

ঢাকা উপজেলা

[Dhaka Upazila][fbig2 animated]

রাজনীতি

[political_news][carousel2]

অপরাধ

[Crime][slider2]
Powered by Blogger.