মহিন্দর সিং গিল ও তার স্ত্রী দালজন্দার করের ইচ্ছা পূরণ হতে সময় লেগেছে প্রায় ৪৬ বছর। ভারতের পাঞ্জাব প্রদেশের বাসিন্দা এই দম্পতির কোলজুড়ে গত ১৯ এপ্রিল এসেছে একটি ফুটফুটে ছেলে সন্তান। দীর্ঘকাল অপেক্ষার পর সন্তানের আকাঙ্ক্ষা পূরণ হয়েছে বলেই তার নাম রেখেছেন আরমান।

 


প্রায় দু' বছর ভিট্রো-ফার্টিলাইজেশন (আইভিএফ) চিকিৎসার পর সন্তানের মুখ দেখেছেন দালজিন্দর। স্বামীর শুক্রাণু ও স্ত্রীর ডিম্বানু ভিট্রো-ফার্টিলাইজেশনে ব্যবহার করা হয়েছিল। জন্মের সময় সন্তানের ওজন ছিল দুই কেজি। মা দালজিন্দারের বয়স ৭২ বছর বলে দাবি করেছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

বিয়ে হয়েছিল ১৯৭০ সালে এই দম্পতির। দু'বার গর্ভে সন্তান ধারণের চেষ্টা হলেও তা ব্যর্থ হয়েছিল। অনেকেই দালজিন্দরকে বলেছিলেন, কোনো শিশুকে দত্তক নিতে। কিন্তু সৃষ্টিকর্তার ওপর চোখ বন্ধ করে বিশ্বাস রেখে গিয়েছিলেন এই নারী, এবং অবশেষে নিজের গর্ভজাত সন্তানের মুখ দেখতে দীর্ঘদিনের এই অপেক্ষা সার্থক হয়েছে জানিয়েছেন তিনি।

সন্তানের মুখ দেখতে পেশায় কৃষিজীবি অমৃতসরের বাসিন্দা গিল নিজের জমি বিক্রি করে দিয়েছেন। সন্তানের ভবিষ্যৎ নিয়ে এখন স্বপ্ন বুনছেন এই বাবা-মা।

এর আগে ৭০ বছরের এক নারী বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক মা হিসেবে রেকর্ড গড়েছিলেন। রাজো দেবি নামে ভারতের হরিয়ানার ওই নারী ২০০৮ সালে ৭০ বছর বয়সে এক কন্যা সন্তানের জন্ম দিয়েছিলেন।

টাইমস অব ইন্ডিয়া

Post a Comment

বাংলাদেশ

[National][fbig1]

ঢাকা উত্তর

[Dhaka North][slider2]

ঢাকা দক্ষিন

[Dhaka South][slider2]

আন্তর্জাতিক

[International_News][gallery2]

ঢাকা উপজেলা

[Dhaka Upazila][fbig2 animated]

রাজনীতি

[political_news][carousel2]

অপরাধ

[Crime][slider2]
Powered by Blogger.