কিছু হলেই ফেসবুকে পোস্ট। বিশেষ করে ছবি পোস্টের হিড়িক তো লেগেই থাকে। আর সংসারে বাচ্চা থাকলে তো কথাই নেই। তীব্র প্রতিযোগিতা ছবি পোস্টের। কিন্তু, এর ফলে সমাজের গভীরে বাসা বাঁধছে এক কঠিন অসুখ। সারাক্ষণই ফেসবুক পেজে গিয়ে নিজের পোস্ট দেখা।


যে ক্ষতি হতে পারে বাচ্চাদের ছবি ফেসবুকে আপলোড করলে



 বাচ্চার ছবির পোস্টিং-এ ক’টা লাইক এল। কে ভাল কমেন্ট করল। যতই লাইকের সংখ্যা আর ভাল কমেন্টের সংখ্যা বাড়ছে ততই মুখ উজ্জ্বল হচ্ছে মায়ের। কিন্তু, আশা মতো লাইক আর কমেন্ট না এলেই মুশকিল। মা-এর মনে হাজারো খচখচানি। আর এই খচখচানি থেকে বাসা বাঁধছে এক কঠিন অসুখ। যার নাম ‘মানসিক হতাশা’।

বাচ্চাদের ছবি পোস্ট নিয়ে মায়েদের এই আদিখেত্যায় সম্প্রতি আমেরিকার ওহিয়ো স্টেট ইউনিভার্সিটির এক গবেষণাপত্র সামনে এসেছে। আর সেই গবেষণায় দেখা যাচ্ছে ফেসবুকে বাচ্চাদের ছবি পোস্ট করা নিয়ে মায়েদের মনে ‘হতাশা’ বাড়ছে।


মায়েদেরকে দু’দলে ভাগ করে এই গবেষণা চলে। এমন একদল মা-কে বাছাই করা হয় যাঁরা অধিকাংশ সময় বাচ্চাদের ছবি ফেসবুকে ছবি পোস্ট করছে। পাশাপাশি আর এক দল মা-কে রাখা হয় যাঁরা সেভাবে ফেসবুকে বাচ্চাদের ছবি পোস্ট করেন না। দেখা যায়, যাঁরা বাচ্চাদের ছবি বেশি করে ফেসবুকে পোস্ট করছেন তাঁরা আশাতিত লাইক বা কমেন্ট না পেলেই উদ্বেগ প্রকাশ করছেন। দিনের পর দিন এই উদ্বেগের পরিমাণ এতটাই বেড়ে যাচ্ছে যে তাঁদের মস্তিষ্কে প্রভাব পড়ছে। এর ফলে বাড়ছে হতাশা। অপরদিকে, যেসব মায়েরা স্বাভাবিকভাবে ফেসবুকে বাচ্চার ছবি পোস্ট করেছিলেন তাঁদের মনে কিন্তু সেভাবে হতাশা গ্রাস করেনি।

সুতরাং, ছবি পোস্টে লাইক আর কমেন্টের চাহিদায় নিজেদের লোভ সংবরণ করতে পারলেই ভাল। এমনটাই বলছেন ওহিয়ো বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা।

Post a Comment

বাংলাদেশ

[National][fbig1]

ঢাকা উত্তর

[Dhaka North][slider2]

ঢাকা দক্ষিন

[Dhaka South][slider2]

আন্তর্জাতিক

[International_News][gallery2]

ঢাকা উপজেলা

[Dhaka Upazila][fbig2 animated]

রাজনীতি

[political_news][carousel2]

অপরাধ

[Crime][slider2]
Powered by Blogger.