ইন্দো-কানাডিয়ান বংশদ্ভুত অভিনেত্রী সানি লিওন। অতীতে পর্নো ইন্ডাস্ট্রির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন বলে ভারতে বারবার তাকে সমালোচনা শুনতে হয়েছে। ভারত ছেড়ে যেতে অনেক ভারতীয় তার বিরুদ্ধে থানায় মামলাও করেছেন। বলিউডে অনেক অভিনেতারাও সানিকে দেখলেই নাক সিঁটকাতেন। এরইমধ্যে ছয়/সাতটি সিনেমায় অভিনয়ও করেছেন। যার মধ্যে ‘এক পেহলি লীলা’ ছাড়া প্রায় সবগুলোই সেক্স কমেডি! লাস্যময়ীভাবে তাকে উপস্থাপনার ধারাবাহিকতায় ক’দিন আগে মাস্তিজাদের পর ৬ মে শুক্রবার প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে তার আরো একটি সিনেমা ‘ওয়ান নাইট স্ট্যান্ড’।

 


যেখানে কথা প্রসঙ্গে উঠে এসেছে চলতি বছরের শুরুতে একটি টিভি সাক্ষাৎকারে পাল্টে যাওয়া তার ক্যারিয়ারের কথা। সাক্ষাৎকারে সানি জানিয়েছেন আমির খান ও সদ্য শুটিং শেষ করা বলিউড কিং শাহরুখের সঙ্গে প্রথমবার অভিনয়ের অনুভূতি। ‘ওয়ান নাইট স্ট্যান্ড’ ছবির বিষয়গুলো বাদ দিয়ে সানির জীবনের সাম্প্রতিক ঘটনাগুলো দেয়া হল পাঠকদের জন্য:

ভারতের মানুষ আপনার সম্পর্কে ভিন্ন ধারনা পোষণে করেন, যা চলতি বছরে আপনার বিখ্যাত টিভি সাক্ষাৎকারটি প্রকাশ হওয়ার পর অনেকের মানসিকতার পরিবর্তন ঘটে। এসব ঘটনাকে কিভাবে দেখেন?
ওই ঘটনা আবার মনে করতে চাই না। যতোক্ষণ ওই ইন্টারভিউতে ছিলাম তখন উপস্থাপকের প্রশ্ন শুনে বারবার আমি বেরিয়ে আসতে চেয়েছি। পুরোটা সময় এক ধরনের অস্থিরতার ভিতরে ছিলাম। যখন ক্যামেরা অফ করা হয় তখন ওই সাংবাদিককে আমি এও বলেছিলাম যে, স্যার, ইন্টারভিউয়ের পরতো আপনাকে আপনার পরিবারের কাছে যেতে হবে?’ কিন্তু তারপরও বিব্রতসব প্রশ্ন করা থামাননি তিনি। তাতে আমার কি করার ছিল? এমন ঘটনায় সত্যি আমি মর্মাহত। কিন্তু আমার ভক্ত অনুরাগীরা আমাকে এমন ঘটনায় সমর্থন জানিয়েছে। এরপর থেকে ভারতীয়রা আমাকে মনুষ্যজাতি হিসেবে বিবেচনা করছে। যদিও এই ঘটনার আগে অনেকেই আমাকে মানুষ বলেই বিবেচনা করতেন না। সত্যিই ওই সাক্ষাৎকারটি প্রকাশের পর অনেক কিছুরই পরিবর্তন হয়েছে।     

বলিউডের তারকারা যখন আপনার সমর্থনে দাঁড়ায়, তখনই বোধয় আপনার ক্যারিয়ারটা ভিন্ন দিকে বাঁক নিতে শুরু করে। যেমন আলিয়া ভাট, আনুশকা শর্মা কিংবা প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার মত তারকারা আপনার পক্ষে কথা বলে। তারা কেউ আপনার বন্ধু নয়, কিন্তু তাদের এই সমর্থনকে কিভাবে দেখেন...?
তাদের সমর্থনে আমি সত্যিই আপ্লুত। অন্যরকম অনুভূতিরও। যেসব প্রশ্ন আমাকে সে অনুষ্ঠানে করা হয়েছে তা আগেও বহুবার আমাকে জিজ্ঞেস করা হয়েছে। কিন্তু ওই সাক্ষাৎকারটি দেখে যারা আমার প্রতি সমর্থন জানিয়েছেন তাদের প্রতি আন্তরিকভাবে আমি কৃতজ্ঞ। 

এমন সাক্ষাৎকার পাব্লিশ হওয়ার পর আমির খান আপনার সমর্থনে এগিয়ে এসেছিলেন, এমনকি আপনার সঙ্গে অভিনয় করার ইচ্ছাও পোষণ করতে দেখা গেছে আমিরকে...
আমি জানি(হাসি)। আমির খানের এমন সমর্থনে আমি অভিভূত। তিনি আমাকে একটি বার্তা পাঠিয়েছিলেন, যার জন্য আমি সত্যিই তার প্রতি কৃতজ্ঞ।


তাহলে কি আমরা আমির খানের সঙ্গেও সানিকে দেখবো?
আমির খানের সঙ্গে আমার সরাসরি সাক্ষাৎ হয়েছে। কথাও হয়েছে বিস্তর। কিন্তু সিনেমা নিয়ে তার সাথে কোনো কথা হয়নি।

 

এরইমধ্যে শাহরুখের ‘রইস’ সিনেমায় শুটিংও করেছেন?
আমার স্পষ্ট মনে আছে যে শাহরুখ খান আমার স্বামীকে ফোন করেছেন! আমি আর ডেনিয়েল ওয়েবার একসঙ্গেই গাড়িতে বসা ছিলাম। হঠাৎ দেখি ডেনিয়েল কারসঙ্গে ফোনে কথা বলছে। কথা বলার পর গাড়িতে বসেই ডেনিয়েল আমাকে বললো, সানি! তুমি জানো আমাকে কে কল করেছিল? তুমি বিশ্বাস করতে পারবে না সে তুমাকে তার ছবিতে একটি গানের প্রস্তাব দিয়েছে! অনেকক্ষণ এমন করার পর ডেনিয়েল আমাকে বললো সেই ব্যক্তিটি বলিউড কিং শাহরুখ! এমন কথা শুনে আমি ডেনিয়েলকে জিজ্ঞেস করেছিলাম যে, তুমি কি সিওর যে শাহরুখ ঠিক নম্বরে কল দিয়েছে? হয়তো অন্যকাউকে সে কল করে থাকতে পারে!’ আসলে সত্যিই আমার বিশ্বাস হয়নি যে শাহরুখ আমাকে তার ছবির জন্য ভেবেছেন! এমন ঘটনার বেশ ক’দিন পর্যন্ত আমি রীতিমত শকড্ ছিলাম, তৃপ্তির রেশও ছিল বেশ ক’দিন!

Post a Comment

বাংলাদেশ

[National][fbig1]

ঢাকা উত্তর

[Dhaka North][slider2]

ঢাকা দক্ষিন

[Dhaka South][slider2]

আন্তর্জাতিক

[International_News][gallery2]

ঢাকা উপজেলা

[Dhaka Upazila][fbig2 animated]

রাজনীতি

[political_news][carousel2]

অপরাধ

[Crime][slider2]
Powered by Blogger.