মধ্য আমেরিকার দেশ এল সালভেদরে নারীদের অনিচ্ছাকৃতভাবে গর্ভপাত হয়ে গেলেও কঠোর শাস্তির মুখোমুখি হতে হয়। এ শাস্তি এতই কঠোর যে, তাতে এমনকি ৪০ বছরের জেলও হতে পারে। এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে ইন্ডিপেনডেন্ট।


এল সালভেদরের একজন নারীর নাম মারিয়া তেরেসা রিভেরা। অনিচ্ছাকৃত গর্ভপাতের পর ৪০ বছরের কারাদণ্ড হয়েছিল তার। রিভেরাকে গর্ভপাত এবং হত্যার অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছিল। কিন্তু সম্প্রতি এসব অভিযোগের পর্যাপ্ত প্রমাণ উপস্থাপন করতে না পারায় তিনি ছাড়া পান। তবে ততদিনে পাঁচ বছর জেল খাটা হয়ে যায় এ নারীর। তবে শেষ পর্যন্ত রায় পরিবর্তনের ফলে আবারও সন্তানের সঙ্গে একত্রিত হওয়ার সুযোগ পান ভাগ্যবিড়ম্বিত এ নারী। এই রায়কে অভিনন্দন জানিয়েছেন দেশটির মানবাধিকার কর্মীরা। ৩৩ বছর বয়সী মারিয়া তেরেসা রিভেরার একমাত্র নারী নন যিনি গর্ভপাতের অভিযোগে শাস্তি ভোগ করেন। জানা যায়, ১৯৯৮ থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত ছয় শতাধিক নারীর জেল হয় গর্ভপাতের অভিযোগে। ২০১২ সালের ৩০ অক্টোবর গ্লেন্ডা জায়োমারা ক্রাজ নামে ১৯ বছর বয়সী এক গর্ভবতী নারীর পেটব্যথা ও এক পর্যায় রক্তপাত শুরু হয়। পরিবারের সদস্যরা তাকে কাছের একটি হাসপাতালে নিয়ে গেলে জানা যায়, তার গর্ভের চার মাস বয়সী ভ্রুণ মারা গিয়েছে। এতে তার বিরুদ্ধে ভ্রুণ হত্যার দায়ে অভিযোগ আনা হয়। এরপর তাকে বিচারের মুখোমুখি পাঠানো হয় যেখানে শেষ পর্যন্ত তার ১০ মাসের কারাদণ্ড হয়। প্রতি বছর অনিচ্ছাকৃত গর্ভপাতের শিকার হন বহু নারী। নানা কারণে এ গর্ভপাত হয়ে থাকে। তবে এল সালভেদরের আইন অনুযায়ী প্রায়ই এমন অনিচ্ছাকৃত গর্ভপাতের শিকার হওয়া নারীদের দোষী সাব্যস্ত করা হয় এবং কঠোর শাস্তির মুখোমুখি করা হয়, যার বিরোধিতা করছেন মানবাধিকার কর্মীরা। 

Post a Comment

বাংলাদেশ

[National][fbig1]

ঢাকা উত্তর

[Dhaka North][slider2]

ঢাকা দক্ষিন

[Dhaka South][slider2]

আন্তর্জাতিক

[International_News][gallery2]

ঢাকা উপজেলা

[Dhaka Upazila][fbig2 animated]

রাজনীতি

[political_news][carousel2]

অপরাধ

[Crime][slider2]
Powered by Blogger.