রোদ চশমা বা সানগ্লাস যে শুধু আপনার সৌন্দর্য বাড়িয়ে দেবে তা কিন্তু নয়, রাস্তাঘাটের ধুলোবালি ছাড়াও সূর্যের ক্ষতিকর বেগুনি রশ্মির হাত থেকেও চোখ সুরক্ষিত রাখে সানগ্লাস। বিশেষ করে মোটরসাইকেলারোহী এবং যারা অধিক সময় বাইরে চলাফেরা করেন, তাঁদের জন্য এই গ্রীষ্মে সানগ্লাস তো একেবারে অপরিহার্য অনুষঙ্গ। 

 

বাজারে ছেলেমেয়ে ও শিশুদের জন্য পাওয়া যাচ্ছে ডিজাইন করা বাহারি সব সানগ্লাস। তবে বাজারে মার্কারি গ্লাসের সানগ্লাসই বেশি। পাশাপাশি মেটাল ফ্রেম ও টাইটানিয়াম ফ্রেমের সানগ্লাসও পাবেন। এ প্রসঙ্গে সেঞ্চুরি আর্কেডের আই ফ্যাশন কেয়ারের স্বত্বাধিকারী ইব্রাহিম খালেদ জানালেন, মেটাল ফ্রেমের সানগ্লাসগুলো বেশ টেকসই, ওজনে হালকা হওয়ায় ব্যবহারও করা যায় স্বাচ্ছন্দ্যে। এলিফ্যান্ট রোডে দৃষ্টি আইকেয়ারের ব্যবস্থাপক রুহুল আমিন জানালেন, ‘এই সময়ের ট্রেন্ড হলো একটু বড় ফ্রেমের চার কোনা বা ডিম্বাকার সানগ্লাস।
ছেলেদের পছন্দের তালিকায় আছে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের পোলারাইজড মার্কারি সানগ্লাস। ইসলামপুরের চশমা বিতানের ম্যানেজার সফিকুল ইসলাম বলেন, রেবন, পুলিশ, ওকলে, কার্ডিয়া, মার্সিডিস, সাফারি, ডানহিল, শ্যানেল, সিডি, লিভাইস, ফিলা, ফেনডি, ডিওর ও থমবর্নি, পড়শি, ডিজেল ও গুচি ব্র্যান্ড থেকে বেছে নিতে পারেন যেকোনোটি।
মেয়েদের জন্যও বাজারে পাবেন মিউমিউ ও ফ্রেন্ডি ব্র্যান্ডের সানগ্লাস। এসব সানগ্লাসেও পোলারাইজড গ্লাস ব্যবহার করা হয়েছে। পোলারাইজড সানগ্লাসের বেশির ভাগই ওভাল শেপের। ফ্রেমের মধ্যেও বিভিন্ন ডিজাইন আছে। কোনো কোনো ফ্রেমে প্রিন্ট করা, কোনো ফ্রেমে স্টোন বসানো। রাউন্ড, স্কয়ার ও ট্রাই-অ্যাঙ্গেল শেপের সানগ্লাসগুলোই তরুণীদের বেশি পছন্দ বলে জানালেন সফিকুল ইসলাম।
এ ছাড়া শিশুদের জন্যও আছে রঙিন ফ্রেমের সানগ্লাস। লাল, নীল, বেগুনি বা অন্য যে রঙের ফ্রেম আপনার শিশুর ভালো লাগে, তাকে সেটিই কিনে দিন। তবে খেয়াল রাখতে হবে গ্লাসটি যেন প্লাস্টিক না হয়। শিশুদের উপযোগী সানগ্লাসের সঙ্গে বাড়তি বাঁকানো অংশ থাকে, যেটি শিশুর কানের পেছনে শক্তভাবে আটকে থাকবে। এ বাড়তি অংশটি থাকার সুবিধা হলো, শিশু ছোটাছুটি করলেও সহজে খুলে যাবে না।
রঙের বাহার
একটা সময় শুধু কালো আর বাদামি রঙের সানগ্লাসই বেশি চোখে পড়ত। সময়ের সঙ্গে এখন সানগ্লাসের ধরন, রং সব বদলেছে। এখন কেবল কালো কিংবা বাদামি রঙের মধ্যে সীমাবদ্ধ নেই। বাজারে পার্পেল, সাদা, ওয়াটার, কমলাসহ বিভিন্ন রং ও শেপের সানগ্লাস পাওয়া যাচ্ছে। এ ছাড়া বিভিন্ন রঙের বর্ডারযুক্ত সানগ্লাসের চাহিদাও বাড়ছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মার্কেটিং বিভাগের ছাত্রী শারমিন নাহার বললেন, ‘বর্ডারযুক্ত সানগ্লাসগুলো ওয়েস্টান পোশাকের সঙ্গে মানায়। তাই টপসের সঙ্গে এগুলোই পরি।’ গায়ের রঙের সঙ্গে মিল রেখে গ্লাসের রং বাছাই করতে পারেন। উজ্জ্বল গায়ের রঙের সঙ্গে স্বচ্ছ, সবুজ ফ্রেম ভালো মানাবে। বাদামি দিব্যি চলে যাবে। ফর্সা চেহারা যাঁদের, তাঁরা উজ্জ্বল বাদামি অথবা গোলাপি শেডের সানগ্লাস ব্যবহার করতে পারেন। আর যাঁদের গায়ের রং একটু কালো, তাঁদের মুখের সঙ্গে মেটালিক ফ্রেম, হালকা বাদামি রঙের সানগ্লাস পরতে পারেন।
দরদাম
বাজারে দেশি-বিদেশি বিভিন্ন ব্র্যান্ড ও নন-ব্র্যান্ডের সানগ্লাস পাবেন। বিভিন্ন ব্র্যান্ডের মধ্যে ছেলে ও মেয়েদের রিবন, পুলিশ, কেরারা, ফার্স্ট ট্রাক, ওকলে, গুচি, প্রাডা, শ্যানেল, পুমার সানগ্লাসগুলোর দাম পড়বে এক হাজার ৫০০ থেকে ২৫ হাজার টাকা।
মেয়েদের মিউমিউ ও  ফ্রেন্ডি ব্র্যান্ডের সানগ্লাস পাবেন এক হাজার ৫০০ থেকে ১৬ হাজার টাকার মধ্যে। নন-ব্র্যান্ডের সানগ্লাস পাবেন ১২০ থেকে এক হাজার ১৫০ টাকায়। শিশুদের ননব্র্যান্ডের বেবিসানগ্লাসের দাম পড়বে ৩০০ থেকে এক হাজার ২০০ টাকার মধ্যে।
কোথায় পাবেন
বিভিন্ন ব্র্যান্ড ও ননব্যান্ডের সানগ্লাস পাবেন নিউ মার্কেট, বসুন্ধরা সিটি, গুলশান পিংক সিটি, সীমান্ত স্কয়ার, যমুনা ফিউচার পার্ক, গুলিস্তানের স্টেডিয়াম মার্কেটসহ রাজধানীর বিভিন্ন মার্কেটের চশমার দোকান ও প্রসাধনীর দোকানে। সানগ্লাসের জন্য বিখ্যাত হলো এলিফ্যান্ট রোড। এখানে সব ধরনের সানগ্লাস পাবেন।

Post a Comment

বাংলাদেশ

[National][fbig1]

ঢাকা উত্তর

[Dhaka North][slider2]

ঢাকা দক্ষিন

[Dhaka South][slider2]

আন্তর্জাতিক

[International_News][gallery2]

ঢাকা উপজেলা

[Dhaka Upazila][fbig2 animated]

রাজনীতি

[political_news][carousel2]

অপরাধ

[Crime][slider2]
Powered by Blogger.