রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. এ এফ এম রেজাউল করিম সিদ্দিকীর লাশ ময়নাতদন্ত শেষে তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। শনিবার দুপুর পৌনে একটার দিকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে তার লাশ পরিবারের সদস্যদের কাছে হস্তান্তর করা হয়। বাদ এশা গ্রামের বাড়িতে শিক্ষকের লাশ দাফন করা হবে বলে পরিবার সূত্রে জানা গেছে।




এদিকে হত্যাকাণ্ডের পর বিষয়টি গণমাধ্যমে প্রচারিত হলে নিহতের রাজশাহী জেলার বাগমারার দরগা মাড়িয়া গ্রামের বাড়িতে শুরু হয় শোকের মাতম। ছেলের মৃত্যুর খবরে বাবা আবুল কাশেম সংজ্ঞাহীন। মা মর্জিনা বেগম ছেলের মৃত্যুকে কোনোভাবেই মেনে নিতে পারছেন না। বার বার প্রলাপ বকছেন।

রেজাউল করিমের ভাগ্নে শরিফুল ইসলাম জানান, মরদেহ শহরের শালবাগান এলাকার বাড়িতে রাখা হয়েছে। শালবাগানে প্রথম জানাজা শেষে সন্ধ্যা ছয়টার দিকে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে লাশ নিয়ে যাওয়া হবে। সেখানে দ্বিতীয় জানাজা শেষে রাজশাহীর বাগমারার দরগা মাড়িয়ায় গ্রামের বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হবে। গ্রামের বাড়িতে তৃতীয় জানাজা শেষে বাদ এশা লাশ দাফন করা হবে।

নিহত শিক্ষক রেজাউল পরিবারের পাঁচ ভাই-বোনের মধ্যে সবার বড়। তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের প্রভাষক পদে যোগদান করেন। তার ছোট ভাই সাজেদুল করিম সেলিম নাটোরের সিংড়া উপজেলার মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসের একাডেমিক সুপারভাইজার পদে কর্মরত আছেন। তিন বোনের মধ্যে দুই বোন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক হিসেবে রাজশাহী শহরে কর্মরত বলে জানিয়েছেন স্বজনরা।

Post a Comment

বাংলাদেশ

[National][fbig1]

ঢাকা উত্তর

[Dhaka North][slider2]

ঢাকা দক্ষিন

[Dhaka South][slider2]

আন্তর্জাতিক

[International_News][gallery2]

ঢাকা উপজেলা

[Dhaka Upazila][fbig2 animated]

রাজনীতি

[political_news][carousel2]

অপরাধ

[Crime][slider2]
Powered by Blogger.